ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে পাহাড়েও জ্বলছে আলো যুদ্ধাপরাধীদের যাবজ্জীবন কারাদন্ড নয়, ফাঁসি চাই। কোনো প্রহসন নয়। দ্রুততম সময়ের মধ্যে এই বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হোক। রায়ও কার্যকর হোক। বান্দরবান কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দিনব্যাপী সমাবেশ শেষে রাতে এভাবেই প্রতিবাদ জানায় ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নতুন প্রজন্ম’। “এই লড়াই বাচার, এই লড়াই জিততে হবে” গানে গানে যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসির দাবিতে আমরা এক হয়েছি বান্দারবান শ হীদ মিনার প্রাঙ্গণে ………।।

৭/২/২০১৩ ইং তারিখে সকাল ৯টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত জেলা সদরের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জাগ্রত প্রজন্ম’ এ অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে। এ সময় বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতা কাজী মুজিবুর রহমান, এ কেএম জাহাঙ্গীর, লক্ষী পদ দাশ, রাজেশ দাশ, মং মং সো প্রমুখ।

আমার নেওয়া এক সাক্ষাতকারে নতুন প্রজন্মের মুখোপাত্র মং মং সো বলেন:

“চেয়েছিলাম সম্পূর্ণ দলীয়প্রভাবমুক্ত একটা আন্দোলন করতে ! কিন্তু তা হয়ে উঠেনি ! চেয়েছিলাম মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সবাই রাজাকারের ফাঁসির দাবি জানাবে একেবারে মাতৃভূমির দায়বদ্ধতা থেকে । কিন্তু এটা অনেকেই বুঝে ওঠেনি অথবা বুঝেও হঠকারীতা করেছে ! দাবির চেয়ে নিজের দলকেই বড় করে দেখেছেন তারা !

সকালের অবস্থান কর্মসূচী ভালভাবেই শেষ হয়েছিল । কিন্তু বিকালে তা আর টিকে থাকেনি । বান্দরবান শহর ছাত্রলীগ তাদের ব্যানার নিয়ে চলে এসেছে আমাদের আন্দোলনের সাথে ”একাত্বতা ঘোষণা” করার জন্য !! ব্যানার ঝুলিয়ে দিয়েছে আমাদের “যাবজ্জীবন নয় যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি চাই” লেখা মূল ব্যানারের উপর ! ঠিক সেই মুহুর্তেই অনুষ্টানের পুরো সুর গেছে পাল্টে !

ভাই আমরা দলকে নয় দেশকে ভালবেসে, ব্যানারকে নয় রাজাকারদের ঘৃণা করেই এই আন্দোলনটা করতে চেয়েছি । মুক্তিযুদ্ধকে বিশ্বাস করতে কোন নির্দিষ্ট পতাকার নিচে দাড়াতে হয়না । নিজে একটু সচেতন হলেই চলে ।”

তাছারা নতুন প্রজন্মের পক্ষ থেকে বান্দরবান প্রথম আলো বন্ধুসভার সভাপতি হেলাল মাহমুদ, সদস্য শেখর পাল, উজ্জল মাহমুদ ও বিশ্বজিত চক্রবর্ত্তী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ৮/২/২০১৩ ইং সন্ধ্যা ৭ টায় মশাল মিছিল বের করে নতুন প্রজন্ম। প্রেসক্লাব থেকে শুরু করে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে আবার ফিরে আসে প্রেস ক্লাবে।

ফেসবুক ইভেন্ট : https://www.facebook.com/events/451373204933306/ থেকে জানা যায় ১৫ তারিখ পর্যন্ত এই অনশন চলবে।