ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

রাজনৈতিক মঞ্চে দাঁড়িয়ে বক্তিতা আর সরকার গঠন করার পর সরকারের চেয়ারে বসে বক্তিতা বা প্রতিশ্রুতি কোন দিন ও এক হয় না বা হবার নয়।

সেদিন বেগম খালেদা জিয়া তার বহুল আলোচিত লং মার্চ নামক কর্মসূচি তে জনতার উদ্দেশ্যে বলছিলেন যারা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর থেকে পদতাগ করে তার দল বিএনপি তে যোগ দিবে তাদের সম্মান জনক পদ দেয়া হবে, আমরা এটাকে কেউ পরিহাস, আবার কেউ স্বার্থ পরতার চোখে অনুধাবন করেছি, আবার কেউ হিসাব মিলিয়ে বসে আছি যে সরকারের সময় শেষ হবার আগে তো একটা সুযোগ আছেই। মুলত, খালেদা জিয়ার এই কথাটা পরিহাস না করে আমরা একটু গভীর ভাবে অনুধাবন করার চেষটা করি, কারন বেগম খালেদা জিয়া নিজে ভালো করেই অনুধাবন করতে পেরেছেন তার বর্তমান কমিটি গুলো তে যোগ্য নেত্তিতের সংকট। বিশেষ করে জোট সরকার এর পর তৎকালীন তত্তাবধায়ক সরকার যে বায়স্কোপ আমাদের সাধারন জনগন কে দেখিয়েছে তা মনে হয় না জনগণ ভুলতে পারবে। সে সময় বিএনপির কোন নেতা বা নেত্রির দুর্নীতি ছিল না তা কিন্তু হাতে গুনে বলতে হবে না, আমাদের সকলের কাছেই এর হিসাব আছে, বিশেষ করে তাদের হরতালের কর্মসূচী গুলো দেখলে কিছুটা সহজ হয়ে যায়, আর এক্ষেত্রে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর যে হরতাল ঠেকাও নীতি তা তারা বিএনপির কাছ থেকেই মুখস্থ করে এখন তার জবাব দিচ্ছে, এবং এক্ষেত্রে তারা ১০০ তে ১০০ পাবার মতই পরীক্ষা দিচ্ছে।

অন্যদিকে আমাদের কখনই মিথ্যা বলার প্রয়োজন হবে না যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর বর্তমান কর্ণ ধার জননেত্রি শেখ হাসিনা তার চলমান সরকারের সময় প্রাপ্তির পরিমাণ কিন্তু কোন অংশেই কম নয়, এক্ষেত্রে আমরা তাদের কে সাধুবাদ জানাই শুধু কিছু কিছু ব্যাপার জননেত্রি কে ভালভাবে খেয়াল রাখতে হবে……………

বিশেষ করে গোপালগঞ্জ প্রীতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর জন্য সব সময় ভয়ংকর আকার ধারণ করে, বর্তমানে ও তাই হয়েছে, যা হয়েছিলো গত টার্মের সময় ………..

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সভানেত্রী জননেত্রি শেখ হাসিনার নিজ জন্মভূমি ও তার শ্রদ্ধেয় পিতা আমাদের হাজার বছরের শ্রষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির জনক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মস্থান হওয়ার কারনে আমরা বঙ্গবন্ধুর পূর্ণ ভুমি হিসেবে গোপাল গঞ্জের টুঙ্গি পারা কে শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করি, কিন্তু সেই পূর্ণ ভুমি গোপালগঞ্জের নাম ভাঙ্গিয়ে অনেক কিছুই করা হয়, আমাদের ভুলে গেলে চলবে না, বঙ্গবন্ধু শুধু গোপালগঞ্জ বাসীর নয়, তিনি সারা বাংলাদেশের, তাকে যারা দেখেছে, যারা তাকে সঠিক ভাবে অনুধাবন করতে পেরেছে তারা কখনই তার নামের সাথে বা নামের প্রতি বেঈমানি করতে পারবে না, তারা কিছু পাক আর না পাক এমনিতেই বঙ্গবন্ধু কে ভালবাসে। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করছি এই ব্যাপার ও হিসাব গুলোর দিকে লক্ষ রাখার জন্য।