ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ

 

বাংলাদেশে বিশ্ব ব্যাংক এর ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি সংসদীয় কমিটি বর্তমানে অবস্থান করছেন, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাতের সময় ডঃ ইউনুস কে বিশ্ব ব্যাংক এর প্রেসিডেন্ট হিসেবে মনোনীত করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনুরধ করেছেন, যখন প্রথম মিডিয়ার বদৌলতে খবরটি জানতে পারলাম কিছুটা আশ্চায হলাম ! আমাদের জননেত্রি শেখ হাসিনা ডঃ ইউনুস কে বিশ্ব ব্যাংক এর প্রেসিডেন্ট করার জন্য অনুরধ করেছেন, অবাক হবার ই কথা – ব্যপারটি পরে বুঝতে পারলাম।

কিছুদিন পূর্বে বিশ্ব ব্যাংক আমাদের পদ্মা সেতুর ফাণ্ড এর যোগান নাকচ করে দিয়েছিলেন আর নাকচ এর ব্যাপারে মূল নায়ক ছিলেন ডঃ ইউনুস। আর সেই ডঃ ইউনুস কে প্রেসিডেন্ট করার ব্যাপারে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিনিধি দলের কাছে অনুরধ করেছেন, যতটুকু বুঝতে পারলাম আমাদের বঙ্গবন্ধু কন্যা সঠিক জায়গায় ঢিল মেরেছেন, এবং এক অর্থে জবাব ও দিয়েছেন, এক ডঃ ইউনুস এর কথায় যদি আপনারা আমাদের উন্নয়ন মুলক কর্মকাণ্ড বন্ধ করে দেন তাহলে তাকেই আপনাদের হর্তা কর্তা বানিয়ে নিন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী প্রকৃতপক্ষে এই কথাই বলতে চেয়েছেন। ধন্যবাদ সে কারণে আমাদের জননেত্রিকে তার সাহসি ও বুদ্ধিদিপ্ত কর্মকাণ্ডের জন্য ।

এ ব্যাপারে আমাদের বিরোধী দল এর মুখপাত্র বললেন প্রধানমন্ত্রী উপহাস করেছেন ডঃ ইউনুস এর সাথে, উনি উনার হিসেবে যা বলা প্রযোজ্য তাই করেছেন। এই নিয়ে আমরা আর তর্ক করতে চাই না। যাহোক ডঃ ইউনুস শান্তিতে নোবেল জয়ী হয়ে আমাদের দেশকে সমৃদ্ধ করেছেন সেটা কে নিয়ে তো আর অস্বীকার করা যায় না, যেভাবেই পাক আর যে পদ্ধতিতেই উনি অর্জন করুক না কেন ! আমাদের দেশের নাম তো উজ্জ্বল হয়েছে, তাই নয় কি ?

ডঃ ইউনুস শান্তিতে নোবেল অর্জন করেছেন, বিশ্ব শান্তির জন্য তিনি কি করেছেন তা কিন্তু দেখার বিষয়, গ্রামীণ ব্যাংক নামক এন,জি ওর মাধ্যমে চড়া সুদে ক্ষুদ্র ঋণ দিয়ে তিনি যেমনি সাময়িক ভাবে অবদান রেখেছেন ঠিক তেমনি শোষণ ও করেছেন। যা কিনা প্রমানিত ।

আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব বাংক এর প্রতিনিধি দের যে হিসাব করে বলে ছেন ডঃ ইউনুস এর রাশি কিন্তু ভাল, সেকারনে হলে হয়ে ও যেতে পারে, এছাড়া জননেত্রি শেখ হাসিনা এই মুহূর্তে বিশ্ব নেত্রীর উপাধিও অর্জন করেছেন সেকারনে দাতা গোষ্ঠী দিয়েও দিতে পারে বিশেষ বিবেচনার সাথে ।

***
ফিচার ছবি: http://omsnewsbd.com