ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, ” পদ্মা সেতু নিয়ে ব্যাপক দুর্নীতি হচ্ছে—এমন অভিযোগ বিশ্বব্যাংকের। যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগের সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত পদ্মা সেতু প্রকল্পে বিশ্বব্যাংক সাহায্য বন্ধ রাখবে বলে জানিয়েছে “। ‘বিশ্বব্যাংক বলেছে, পদ্মা সেতু প্রকল্প নিয়ে দুর্নীতির তথ্যপ্রমাণ তাদের কাছে রয়েছে “। এ চিরসত্য কথাটি বিদেশের মাটিতে বসে বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধিদের কাছ থেকে শুনতে কেমন লাগলো আপনার? এ অভিযোগ তো দেশের মাটিতে থেকেই তো শুনেছিলেন । সে সময় কেন এর বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহনের পদক্ষেপ নেন নাই? বরঞ্চ এই অভিযোগগুলোর বিরুদ্ধে এ দেশের সাধারন জনগন শহীদ মিনারের পাদদেশে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ করেছিল – আপনারা তাদের বিরুদ্ধে বিরুপ সমালোচনা করেছিলেন। তারা যেন এর বিরুদ্ধে আর বেশি প্রতিবাদ না করতে পারে তার ব্যাবস্থা গ্রহন করেছিলেন । কিন্তু যাদের জন্য কলঙ্কের বোঝা সবার সামনে কাঁধে নিয়ে বিদেশ থেকে দেশে ফিরলেন, তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করার হয়তো কোন নিয়মই তৈরী করতে পারেন নাই !!!!!!!!!!!!!! কেন ????? হায়রে নোংরা রাজনিতি ???