ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

Fakhrul-BNP

আবার হরতাল-পিকেটিং এর ফাঁদে পড়ে গেল দেশ। কি যে শান্তি আর আরামে ছিলাম গত ৮-৯ টা মাস, বলে বোঝাতে পারবো না। আবার বুঝি ফিরে আসছে ভাংচুর, জ্বালাও -পোড়াও এর রাজনীতি।

সাঈদীর আমৃত্যু কারাদন্ডের প্রতিবাদে জামাতের ডাকা হরতাল। সেই সাথে সুযোগ বুঝে বিএনপি’র হরতাল। আগে বলা হতো জামাত শিবির বিএনপি’র পকেটে ঢুকে গেছে। এখন দেখছি উলটো ব্যাপার। খোদ বিএনপি এখন জামাতের পকেটে বিলীন হয়ে গেছে। কতটুকু নির্লজ্জ আর রাজনৈতিক ভাবে দেউলিয়া হলে জামাতের ডাকা হরতাল অনুসরন করে বিএনপি’র মত বৃহৎ একটা দল এক দিনের হরতাল এর ডাক দেয় সেটা ভেবে পাইনা। জামাতের তবুও একটা ইস্যু আছে (যদিও হাস্যকর), বিএনপি’র ইস্যুটা কি? বিচারপতিদের অভিসংশন আইন তো পাশ হয়ে গেছে – এখন হরতাল দিয়ে লাভ কি? আইন পাল্টাবে?

গত সাধারণ নির্বাচনে সর্বদলীয় অংশগ্রহন না থাকায় ভোট দিতে যাইনি। তবে শুনে রাখুন বিএনপি বোদ্ধারা, নির্বাচনে বিএনপি এলেও আমার ভোট পেত না। ভবিষ্যতে আমার বা আমার পরিবারের কারো ভোট পাবেও না।