ক্যাটেগরিঃ আন্তর্জাতিক

 

মধ্য আফ্রিকার দেশ উগান্ডা। রাজধানী কাম্পালা থেকে ৩৯০ কিমি উত্তর পশ্চিমে ছোট্ট একটা জনপদ নেব্বি। তারও মাইল দশেক পশ্চিমে আফ্রিকারই আরেক যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশ ডি আর কঙ্গোর সীমান্ত। নেব্বি থেকে কঙ্গোর সীমান্তে যেতে প্রায় ৩ হাজার ফুট উচ পাহাড়ে চড়তে হয়। এখানে অসংখ্য আম গাছ, সারা বছর আম ধরে। আরো আছে তেতুল, আনারস আর আখ। রাস্তার পাশে আম বিক্রি হচ্ছে। দাম এবং মান যাচাইয়ে নেমে পড়লাম গাড়ী থেকে। আমওয়ালীর পাশে একটা ছোট্ট মেয়ে, তার পিঠে আরেক শিশু, সম্ভবতঃ তার বোন হবে। পিঠের শিশুটির বয়স এক – দুই মাস হতে পারে। অসাধারণ মায়া ভরা চোখ, মুখ। ওদের দিকে তাকাতেই কি যেন একটা আমার চোখে পড়ল। ঠিক বুঝতে পারছিলাম না। ভাল করে তাকাতেই দেখি বড় মেয়েটির দু’পায়েই ছয়টি করে আংগুল।
কাপড় চোপর দেখে বোঝা যায় ওরা হত দরিদ্র, কিন্তু ভিক্ষুক নয়। সোয়াহেলী ভাষায় কথা বলে, কিন্তু আমি বা আমার সঙ্গী সাথী কেউ সেই ভাষা জানি না। তাই কথা হল না। ফেরত যাত্রা পথে আমার ভাবনা জুড়ে রয়ে গেল কেবল ছোট্ট নিস্পাপ সেই শিশু দু’টির মুখ।

আফ্রিকার শিশু

 

 

 

 

 

 

 

 

 

20150104_132607

 

 

 

 

 

***
গেল সপ্তাহে বড় মেয়েটির ছবি আপলোডের চেষ্টা করলাম। ব্লগ পোষক কি ভেবে মন্তব্যে লিখে দিলেন যেন নিজের তোলা ছবি জমা দেই ( অর্থাৎ তার ধারনা আমি ছবিটি কোথাও থেকে কপি-পেষ্ট করে দিয়েছি)। ছবিটি প্রত্যাহার করে নিয়েছিলাম। কিছু লেখার সময় হাতে ছিলনা। গত ২-৩ মাসে ব্লগে কোন লেখা নেই আমার । শুধু মাঝে মাঝে অন্যের লেখার ফাপর দালালী (মন্তব্য আর কি) করেছি। আজ কিছুটা সময় পেয়ে লিখে দিলাম, ছবিটিও দিলাম।