ক্যাটেগরিঃ ফটো

 

এমন শান্ত স্নিগ্ধ সুন্দর দৃশ্যটি যে কোন প্রকৃতি প্রেমীর কাছে অসাধারণ ঠেকবে এটি বলার অপেক্ষা রাখে না। গত কিছুদিন যাবত প্রতিদিন সকালে আমি এমন সুন্দর দৃশ্যটি উপভোগ করে চলছি। সংসদ ভবন এলাকার চন্দ্রিমা উদ্যানের ক্রিসেন্ট লেকের দক্ষিণ পাড়স্থ রাস্তার দুইধারে সারি সারি কৃষ্ণচূড়ার লাল রঙে সাজানো গাছ গুলো যেন বৈশাখী বার্তা নিয়ে নগরীর কর্মব্যস্ত মানুষ গুলোর মন রাঙানোর দায়িত্ব নিয়েছেন। এ পলক সারিবদ্ধ আগুন রাঙ্গা এই গাছে গুলোর দিকে তাকালে যে কারো মন ভালো হতে বাধ্য। সময় থাকলে নগরীর ক্লান্তি কাটাতে আপনিও একবার ঢু মেরে আসতে পারেন এই শান্ত জলের আগুনরাঙ্গা রুপ দেখতে। কৃষ্ণচূড়া একটি বৃক্ষ জাতীয় উদ্ভিদ যার বৈজ্ঞানিক নাম ডেলোনিখ রেজিয়া (Delonix regia)। এই গাছ চমৎকার পত্র-পল্লব এবং আগুনলাল কৃষ্ণচূড়া ফুলের জন্য প্রসিদ্ধ। এটি ফাবাসিয়ি পরিবারের অন্তর্গত একটি বৃক্ষ যা আমাদের দেশে গুলমোহর নামেও পরিচিত। জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস:- জগৎ/রাজ্য: Plantae, বিভাগ: Magnoliophyta, শ্রেণী: Magnoliopsida ,বর্গ: Fabales , পরিবার: Fabaceae ,উপপরিবার: Caesalpinioideae ,গোত্র: Caesalpinieae , গণ: Delonix , প্রজাতি: D. regia । কৃষ্ণচূড়া ফুল লাল, কমলা ও হলুদ রং এর হয়। কৃষ্ণচূড়া এক সময় মাদাগাস্কারের শুষ্ক পত্রঝরা বৃক্ষের জঙ্গলে পাওয়া যেত এখন এটি জঙ্গলে বিলুপ্ত প্রায। পরিবেশের উপর নিভর্র করে বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে এই গাছের বংশ বৃদ্ধি সম্ভব হয়েছে। সৌন্দর্য বর্ধক গুণ ছাড়াও, এই গাছ উষ্ণ আবহাওয়ায় ছায়া দিতে বিশেষভাবে উপযুক্ত। কৃষ্ণচূড়া গাছ উচ্চতায় সাধারণত ৮- ১২ মিটার হয়, তবে এটি বেশ একটি জায়গা জুড়ে নিজেকে মেলে ধরে। শুষ্ক অঞ্চলে গ্রীষ্মকালে কৃষ্ণচূড়ার পাতা ঝরে গেলেও, নাতিষীতোষ্ণ অঞ্চলে এটি চিরসবুজ। কৃষ্ণচূড়ার জন্মানোর জন্য উষ্ণ বা প্রায়-উষ্ণ আবহাওয়ার দরকার। এই বৃক্ষ শুষ্ক ও লবণাক্ত অবস্থা সহ্য করতে পারে। ক্যারাবিয়ান অঞ্চল, আফ্রিকা, হংকং, তাইওয়ান, দক্ষিণ চীন, বাংলাদেশ, ভারত সহ বিশ্বের অনেক দেশে এই গাছ নিজেকে মানিয়ে নিয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণচূড়া শুধু মাত্র দক্ষিণ ফ্লোরিডা, দক্ষিণ পশ্চিম ফ্লোরিডা, টেক্সাসের রিও গ্রান্ড উপত্যকায় পাওয়া যায়। এশিয়া মহাদেশে বাংলাদেশ, ভারত সহ অন্যান্য জায়গায় সাধারণত এপ্রিল-জুন সময়কালে কৃষ্ণচূড়া ফুল ফোটে। তবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কৃষ্ণচূড়ার ফুল ফোটার সময় ভিন্ন ভিন্ন পরিলক্ষিত হয় ।

ছবিটির স্থান: ক্রিসেন্ট লেক, জাতীয় সংসদ ভবন ক্যাম্পাস। তারিখ: ৩০/০৪/২০১২ইং, সময়: সকাল ০৭:০৬ মিনিট।