ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা

এই অভিজ্ঞতা শুধু আমার একার নয়,আরো অনেকের। এক টাকা নেই বলে দোকানি হাতে ধরিয়ে দিলেন একটি চকলেট। চকলেটের চাকচিক্যে মনকে বুঝিয়ে রাখতে পারিনা, কারন প্রশ্ন আসে মনে যে এই এক টাকা মূল্য মানের পয়সা গুলো কোথায় গেলো। কেউ কি তাদের অপহরন করেছে, নাকি তারা স্বেচ্ছায় নির্বাসিত হয়েছে। আমার বুঝে আসে না যে, আমি কেন এক টাকার বদলে একটি চকলেট নিব। ছোট বেলায় এক টাকার একটি পয়সা হতে দিয়ে আমার মা আমাকে বলেছিলেন, নাও এটি দিয়ে আইচ ক্রিম খাও গিয়ে। আর আমিও সরল মনে রাজি হওয়ায় সেদিন মার হাতের একটি দূর্লভ চড় উপহার পেয়ে ছিলাম। চড়ের কারন ছিল নুতুন বের হওয়া কয়েন গুলো জমিয়ে রাখতে না উৎসাহী হয়ে কেন ভোগে উৎসাহী হলাম। কেন প্রেমকে জলাঞ্জলি দিয়ে ভোগে মেতে ঊঠলাম। আজ সেই কয়েনের নিদারুণ নির্বাসন আমাকে ব্যথিত করে তুলেছে। বছর এক আগে আমার এক বন্ধু এক টাকার কয়েন গুলো চেয়েছিলো আমার কাছে, বিনিময়ে আমাকে সে সম-পরিমান টাকাও দিয়েছিল তাই আর প্রশ্ন জাগেনি মনে যে সে কয়েন গুলো কি করবে। আজ বন্ধুকে জিজ্ঞাস করলে সে আমাকে জানায় মাত্র পাঁচ টাকায় সে প্রতিটি কয়েন বিক্রি করে দিয়েছে। সে নাকি জানতো এগুলো পাচার হয়ে যায়। লোকমুখে শোনা যায় এই কয়েন গুলো নাকি প্রতিবেশী দেশে পাচার হয়, তা দিয়ে তৈরি হয় দামি দ্রব্যাদি। এই হলো আমাদের দেশ প্রেম, দাম মাত্র পাঁচ টাকা। মাত্র পাঁচ টাকায় বিক্রি হয় আমাদের দেশের প্রতি ভালবাসা।