ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

 

মূল্যবোধ ছাড়া কোন কিছু মূল্যবান হয় না। লেখা লেখি একটি শিল্প, শিল্প তৈরি করতে লেখকের মূল্যবোধ প্রয়োজন হয়। আপনি যে লেখা লিখবেন, তার একটা সুন্দর শিরোনাম দিন। সুন্দর শিরোনাম অন্যকে আকৃষ্ট করবে আপনার লেখা পড়তে। শিরোনামটি এমনভাবে করবেন, যাতে পাঠক শিরোনাম পড়েই লেখার সারমর্ম সম্পর্কে জানতে পারে। অতিরিক্ত বাগড়ম্বর, জটিলতা পরিহার করে, আপনি যেভাবে ভাবেন, ঠিক সেভাবেই লিখুন। অহেতুক ঘুরিয়ে, পেঁচিয়ে লেখাকে জটিল করবেন না। অনেক সময় অতিরিক্ত বিশেষণ ব্যবহার পাঠকের ধৈর্যচ্যুতি ঘটাতে পারে। লিখার তিনটি ভাগ করতে পারেন – ভূমিকা, মূলকথা, উপসংহার।

বানানের প্রতি সতর্ক হোন। ভুল বানান আপনার লেখার মানকে কমিয়ে দিবে, আপনার যোগ্যতাকেও সন্দেহের মুখে ফেলে দেবে। বাংলা বানান শুদ্ধ করতে ফায়ারফক্সের এই প্লাগইন ইনস্টল করতে পারেন। বড় লেখার ক্ষেত্রে প্যারা আকারে লিখুন। সেই সাথে দাড়ি, কমা, হাইফেনের উপযুক্ত ব্যবহার করুন। গুরুচণ্ডালি দোষ পরিহার করুন। সাধু ও চলিত ভাষার মিশ্রণকে গুরুচণ্ডালি দোষ বলা হয়। ডিজিটাল যুগে সাধু ভাষায় কেউ লেখে না, লেখে চলিত ভাষায়। অনেকে আবার কথ্য ভাষার আদলে লিখে থাকেন, যেমন – আইছিলাম, খাইছিলাম, গেসিলাম, করমু, খামু, যামু ইত্যাদি। চলিত ও কথ্য ভাষার মিশ্রণকেও গুরুচণ্ডালি বলা হয়। এটা অত্যন্ত দৃষ্টিকটূ, তাই পরিহার করুন। লিখলে যে কোন একটি ভাষায় লিখুন।

লেখক: প্রকৌশলী, খাদ্য প্রযুক্তি।
hzsumon@gmail.com