ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

 

জীবনের সোনালী দিন কোনগুলো? যদি কেউ এমন প্রশ্ন করে বসেন, তবে তার উত্তর কি এড়িয়ে যাবেন? তবে আমি কিন্তু কোন জড়তা ছাড়াই বলে বসবো আমার বিশ্ববিদ্যালয় জীবন। শুধু আমি কেন যে কেউই বুঝি জীবনের এই অংশটিকেই সোনালী অধ্যায় বলে বিবেচনায় নিবেন। এই সোনালী অধ্যায়ের মাঝেই আবার নিহিত রয়ে যায় এর স্বর্ণ-অংশ। আমার জীবনের এই স্বর্ণ-অংশটি আমার ‘হল জীবন’, আমার স্বপ্নময় সময় কারণ সেখানেই শিখেছি চিন্তার গভীরতা। বুঝতে শিখেছি কে কি চায়, কেন চায় ও কিভাবে চায়।

ব্লগ লেখক এম. হামিদুজ্জামান সুমন

হয়তো আমার লিখার মাঝেও তার ছোঁয়া রয়েছে। হয়তো ক্ষীণদৃষ্টি সম্পন্ন অনেকের কাছে এই লিখাগুলো বুঝতে কষ্ট হয়। হয়তো সে কারনে আমাকে ভূল বুঝেও থাকেন। তাতে লেখকের কি বা আসে যায়। লেখক যে চিন্তা চেতনাকেই সমর্থন করেন না কেন তিনি মিথ্যার দাসত্ব করেন না। মিথ্যাকেও সত্য বলতে হবে, আবার সত্যকেও অস্বীকার করতে হবে_ এতোখানি বিবেকহীন তিনি নন। সত্যকে মেনে নেয়ার মত সৎ সাহস তাঁর রয়েছে। আবার অনেকের মত নিরপেক্ষতার ভানও তিনি ধরেন না। তিনি অবশ্যই পক্ষের। সত্যের পক্ষের। কারন লেখক জানেন সত্যের ভূমিকা অসামান্য। সত্য মিথ্যার দোলাচলে হয়তো আমার লিখা গুলো অনেকের কাছে অবাস্তব মনে হতেও পার। তবে দূরদৃষ্টি সম্পূর্ণ একজন ব্যাক্তি আমার লেখাগুলোকে ঠিকই উপলব্ধি করবেন বলে আমার বিশ্বাস।