ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

আজ থেকে ১০৬ বছর আগে ১৯০৫ সালে ‘রিলেটিভিটি’ বা ‘আপেক্ষিকতত্ত্ব’ মতবাদে মহাবিজ্ঞানী আলবার্ট আইনস্টাইন দেখিয়েছিলেন,

আলোর গতি সবচেয়ে বেশি। তার রিলেটিভিটি মতবাদ অনুযায়ী কোনো বস্তুর গতি আলোর চেয়ে বেশি হওয়া তো দূরের কথা এমনকি সমানও হতে পারে না। কোন বস্তু আলোর বেগে পথ অতিক্রম করলে ঐ বস্তুর সমস্ত ভর শক্তিতে পরিনত হবে।

সেই থেকে এ পর্যন্ত পৃথিবীর কোন বিজ্ঞানীই তার ওই মতবাদের বাইরে নতুন কোন থিওরি দিতে পারেননি। কিন্তু দীর্ঘ ১০৬ বছর পর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দু’জন পদার্থবিজ্ঞানী ১৫/২০ বছর যাবত্ গবেষণা করে আইনস্টাইনের আপেক্ষিকতত্ত্ব মতবাদকে চ্যালেঞ্জ করে নতুন থিওরি দিয়েছেন। তাদের গবেষণায় সম্প্রসারিত আপেক্ষিকতত্ত্ব মতবাদের সাহায্যে প্রমাণিত হয়েছে যে, বস্তুর বেগ আলোর চেয়ে বেশি হতে পারে। কণিকা ‘নিউট্রিনো’ সেই বস্তু যে কি-না আলোর চেয়ে বেশি বেগে স্থানান্তরিত হয়।

আলবার্ট আইনস্টাইন দেখিয়েছিলেন, E=mc2 অথাৎ এখান- m= বস্তুর ভর, c2= আলোর বেগে পাঠানো বস্তুর বেগ, E= শক্তি। এই সূএ থেকে দেখা যায় যে, কোন বস্তু আলোর বেগে পথ অতিক্রম করলে ঐ বস্তুর সমস্ত ভর শক্তিতে পরিনত হবে। কিন্তু বস্তু কণিকা ‘নিউট্রিনো’ আলোর চেয়ে বেশি বেগে পথ অতিক্রম করেও তার বস্তুকণা বৈশিষ্ট অক্ষুন্ন রেখেছে। তবে কি আইনস্টাইন ভূল ছিলেন!