ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

হিগসের জন্য জুলাইয়ের ৪ তারিখ ২০১২ সাল দৈনিক বুধবার দুপুর ২ টার সময় সার্নে সবাই বসতেছে যেখানে এখনকার ৫ জন বিখ্যাত তত্বীয় পদার্থবিদ আর সাথে পিটার হিগসও উপস্হিত থাকবেন।

তো ঐ দিন ঘোষনা দেয়া হবে হিগস পাওয়া গেছে এবং এইটা কিভাবে তারা বুঝলো। মূলত ঐদিন এরা কনফার্ম করবে যে হিগস পাওয়া গেছে। গত মে তে যেই সংঘর্ষ ঘটাইছিলো এলএইচসির বিভিন্ন কোলাইডারে সেগুলার ডাটা আসতে শুরু করছে!

কিছুক্ষন আগে সিডিএফ আর ডি জিরো কোলাইডার তাদের ডাটা প্রকাশ করছে যেখানে ২.৯ সিগমা মানে পরিসংখ্যান গত তারতম্য ১ বার পাওয়া যাবে ৫৫০ টা চান্সের মধ্যে! যদিও যেকোনো আবিষ্কারের জন্য ৫ সিগমা দরকার হয় সেখানে ২.৯ এ কি হবে? এইটার জান্য বাকী ডাটার আপডেটের জন্য অপেক্ষা করতে হবে!

এখানে প্রায় সকল কিছুর গ্রাফিক্যাল ডাটা দেয়া হইলো!

হিগসী নিয়া মেলা পোস্ট দিছি। যারা টেকনিক্যাল ডিটেইলে এবং সোজা বাংলায় বুঝবার চান তারা নীচে কিলকান।

হিগস আপডেট…হিগসী মামারে পাওয়া গেছে তয় আরও শিওর হওন বাকী! আসেন বোগল বাজাই!

এক কথা বার বার লিখতে ভালা লাগে না। তয় একখান কথা কই!

হিগসীরে না পাইলে একখান ভেজাল হইয়া যাইতো স্ট্যান্ডার্ড মডেল নিয়া। হাইয়ারার্কি প্রবলেমটা বেশী দেখা দিতো। এমনকি বিগ ব্যাং এর মডেলটা পর্যন্ত পরিবর্তন করতে হইতো তখন। গ্রান্ড ইউনিফিকেশন নিয়া আরেকবার হতাশা বিরাজ করতো সবার মনে!

এটা পাওয়া মানে গ্রান্ড ইউনিফিকেশন প্রমানে আরো এক ধাপ আগায় যাওয়া!

যেমনে এরা চিন্তা করলো যে হিগসী পাওয়া গেছে:

১) সোমবার সকাল ৯ টায় ফার্মিল্যাব টেভাট্রনের থেকে কিছউ ডাটা নিয়া হিগসীর ঘোষনা দেয়। এই ডাটাতে মূলত W আর Z এর সাথে হিগসীর অস্তিত্ব দেখানো হইবো যেইটা পরে b-কোয়ার্কের দিকে ক্ষয় হইয়া যায়।এই চ্যানেলটা নিয়ে মুলত টেভাট্রন কাজ করেছে কিন্তু এলএইচসি এটা্তে ফোকাস করেনি কারন বড় এনার্জীর ইভেন্টে এই চ্যানেলে ব্যাক গ্রাউন্ড নয়েস অনেক বেশী।

২) জুনের ১৮ তারিখে ৬ ইনভার্স ফেমটোবার্নে আর ৮ টেরা ইলেক্ট্রন ভোল্টে এটলাস আর সিএমএস কোলাইডার থেকে ডাটা নেয়া হয় এবং পরে খুব দ্রুত ডাটাগুলোকে নীরিক্ষন করা হয়।এখানে মূলত সবচেয়ে বেশী হিগসের প্রতি সংবেদনশীল চ্যানেল নিয়ে কাজ করে :
ক) H->gamma+gamma
খ) H->ZZ->4l

৩) ICHEP এর অন্য চ্যানেলে হিগসীর দেখা পাওয়ার সম্ভাবনা বেশ কম যেগুলো প্রেস রিলিজে দেয়া হবে না। এটলাস H->WW->lvlv চ্যানেলটা যদিও নীরিক্ষন বেশীর ভাগ করে ফেলেছে তবুও এটার ডাটা জনসাধারনের জন্য উন্মুক্ত নাও হতে পারে!

৪) পরিসংখ্যান গত নির্ভুলতার জন্য ২০১১ সালের সকল পরীক্ষার ডাটা আর ২০১২ সালের H->gamma+gamma এবং H->ZZ->4l চ্যানেলের সকল ডাটা খুব ভালোভাবে পরীক্ষা করা হয় যাতে করে খুব আত্মবিশ্বাসের স হিত বলা যায় হিগসী পাওয়া গেছে!

৫) প্রথম থেকেই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে যে জন সাধারনের জন্য যখন প্রেস রিলিজ করা হবে তখন সার্নের এটলাস এবং সিএমএসের ফলাফল থাকবে না তাতে কারন এর পিছনে একটু পলিটিক্স আছে। পলিটিক্স টা খুবই সোজা যদি না ঐ সব এক্সপেরিমেন্টে ৫ সিগমা লেভেলের কনফিডেন্ট লেভেল না পাওয়া যায়। যদিও পরিস্হিতি উন্নতির দিকে! (কমেন্টে)

৬) ফিলিপ গিবসের উপর নজর থাকে যিনি উনার ব্লগে আনঅফিসিয়ালি হিগসের জন্য বিভিন্ন ডাটা নীরিক্ষন করেছেন!

৭) যখন হিগসীর অস্তিত্ব নিয়ে সংশয় কেটে যাবে তখন মূলত এই নতুন কনিকাটির অন্যান্য অজানা ধর্ম নিয়ে কাজ করা হবে। দেখা হবে এর কি কি নতুন ধর্ম বা বৈশিষ্ট্য থাকতে পারে যেটার উপর ফিলিপস গিবস কাজ করবেন। তার ব্লগে চোখ রাখা যেতে পারে। কাজটা মূলত এ জন্য করা হবে তত্বীয় ভাবে হিগসীর প্রস্হচ্ছেদ পাবার কথা ছিলো এসব নীরিক্ষায় তার ১৫ থেকে ২৫% এর ভ্যারিয়েশন পাওয়া গেছে

৮) ICHEP তে SUSY র জন্য নতুন কিছুই অপেক্ষা করছে না। SUSY র জন্য নতুন কিছু পেতে হলে SUSY২০১২ এর দিকে নজর দিতে হবে!

আপডেট: জুনের ২৯ তারিখে ফিলিপস গিবসের ব্লগে সিএমএসের H->WW->lvlv চ্যানেলের ডাটার যে গুরুত্ব সেটা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে রেসোন্যান্স এর ব্লগে। যেখানে মূলত ৫সিগমা পাওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করা হয়েছে!

আপডেট: দ্য ডেইলি মেইল পত্রিকার বরাত দিয়ে জানানো হয় যে ৪ জুন হিগসীকে পাওয়ার ব্যাপারে জানানো হবে যেখানে মূলত চার জন তত্বীয় পদার্থবিজ্ঞানী উপস্হিত থাকবেন যারা হলেন পিটার হিগস, ইংলার্ট, গুরালিংক, হ্যাগেন, কিবেল এবং এন্ডারসন।

আপডেট: জুনের ২৮ তারিখে টমাসো ডোরিগো হিগসীর জন্য বেশ কিছু ব্যাকগ্রাউন্ড ডাটার উপর ভিত্তি করে একটা পেপার পাবলিশ করে

আপডেট: সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো টেভাট্রনে bb চ্যানেলে হিগসীর ভরের মানে ২/+ .৭ এর মতো পার্থক্য দেখা দিছে যেটা মূলত আগে হিসাবে পাওয়া গিয়েছিলো। এলএইচসি আবার এই চ্যানেল নিয়ে কাজ করে না। স্ট্যান্ডার্ড মডেলের সাথে এটা খুব একটা খাপ খায় না। এলএইচসির বাকী তিনটা চ্যানেলের রিপোর্ট পাবার পরই এই অসামন্জ্ঞস্য নিয়ে সিদ্ধান্তে পৌছা যাবে!

আপডেট: হিগসীর ব্যাপারে টেভাট্রনের পেপার পাওয়া যাবে এখানে ! সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন কথা হলো H->bb চ্যানেলের সিগনালের সাইজ যেটা হিগসের ১২৫ গীগাইলেক্ট্রন ভরের জন্য খাপ খায় যার মান হলো ১.৯৭+.৭৪/-.৬৮ (যেখানে স্ট্যান্ডার্ড মডেলে এর মান হবার কথা ১)

আপডেট: আশ্চর্য্যজনক হলো যখন ঘোষনা আসলো তাদের কাছে প্রমান আছে হিগসীর থাকনের সম্ভাবনা ৯৯% তখন বুঝা যাচ্ছে তাদের নীরিক্ষনে ন্যুনতম ৩ সিগমা পেয়েছে যখন বলছে প্রমান আছে। কিন্তু যখন ৯৯.৯৯% যুক্ত করেছে তখন অবশ্যই ৫ সিগমা!
আপডেট: AP রিপোর্টে কিছুই ক্লিয়ার করা হয় নাই যে কত সিগমা। কিন্তু নেচার পত্রিকাটি গত সোমবার আরো এক ধাপ এগিয়ে যায়

The ATLAS and CMS experiments are each seeing signals between 4.5 and 5 sigma, just a whisker away from a solid discovery claim.

তার মানে ৫ সিগমার কথা বলা হয়েছে।

আপডেট: আটলান্টিকে কভারে সবচেয়ে ভালো ব্লগ লেখা হয়েছে এটার ব্যাপারে যদিও এখানে রেজোন্যান্স স হ অন্যান্য ব্লগকে গুনে নাই।

তাইলে নোবেল পাইতেছে কেডা? ৩৪ টা দেশের কয়েক হাজার বিজ্ঞানী আর ছাত্রগুলান নাকি এলএইচসি নামের মেশিনখান? যদিও যেইখানে গ্রামীন ব্যাংকের মত একটা প্রতিষ্ঠানরে নোবেল দেওনের হিস্টরী আছে সেইখানে এলএইচসি পাইতেই পারে!