ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

লিখবো লিখবো করে অনেকক্ষণ ভার্চুয়াল নিয়ে নাড়াচাড়া করলাম; লেখা হলো না কিছুই। আজকাল কেমন যেন বদলে যাচ্ছি। অনেক বদল দেখেছি জীবনে, সন্ধিক্ষণেও টের পেয়েছি যে বদলে যাচ্ছি। কিন্তু এবারের এই বদল নিয়ে শংকা অনুভব করছি। মনটা কেমন যেন বৈষয়িক হয়ে উঠছে দিনে দিনে। “না পাওয়ার হিসেব অসংখ্য কিন্তু না চাইতে পাওয়া গুলো সে ঘাটতি পুষিয়ে দিয়েছে কত; তার কোন ইয়াত্তা নাই। নাহ্, লিখবো না এখন আর অথবা আমি আদতেই লিখিয়ে নই। যা কিছু লিখি তা সবারই একটা সাধারণ যোগ্যতা। ভাবনাগুলো জট পেকে উঠছে একটু পর শুরু হতে পারে মাথাব্যথা, তারপর শুধু একটাই কাজ অনিবার্য হয়ে উঠবে- শরীরটাকে দক্ষিণমুখী বিছানায় এলিয়ে দেয়া।

দেব, তবে তার আগে পুরোনো দিনের কিছু পংক্তি দিয়ে অংশ নেই –

যুগ যুগ ধরে রইবো যে আমি
তোমাদের মাঝে ঘুরে ফিরে,
হয়ত দেখবে আজ, দেখবে না শুধু কাল;
কায়হীন হয়ে রইবো লুকায়ে সৃজনীর তীরে তীরে।