ক্যাটেগরিঃ ভ্রমণ

 

পরেরদিন ঘুম ভাংলো ভোরের চকচকে রোদ জানালার কাঁচে পড়তেই। ক্ল্যারিওনের এই সাত তলা ভবনটিই বোধ করি ওই এলাকার সর্বোচ্চ ভবন। তাই ঝকমকে রোদ কিংবা কালো মেঘ কিছুই আটকায় না। ৫ তলায় আমাদের রুমের ভারী উইন্ডো কার্টেন ভেদ করে আলো ঢোকে ঘরে। আর সূর্যের আলো এবং ঘুম, আমার কাছে পরস্পর বিরোধী লাগে। সৃষ্টিকর্তা ঘুম দিয়েছেন রাতের জন্যে। দিনের আলো হচ্ছে নির্ঘুম থেকে সৃষ্টির রুপ সৌন্দর্য উপভোগের জন্যে।

যাইহোক এই এক হাজার মাইল পথ পাড়ি দিয়ে এসেছি সৃষ্টির সেই রুপ সুধা উপভোগ করতে। হোটেল কক্ষে থাকা ফ্রি কফি খেতে খেতে মিষ্টার গুগলের কাছে আবেদন করলাম গুগলজি বলে দিন পোর্টল্যান্ডে চোখ জুড়ানোর মতো কি কি আছে। আলাদিনের দৈত্যের চেয়ে দ্রুত গুগল সাহেব এক গাদা লিস্ট দিল। কোনটা ছেড়ে কোনটা রাখি ডিসিশন নেয়া কঠিন।

আসলে পর্যটকদের জন্যে ছোট্ট ওই শহরটিতে রয়েছে উপভোগ করার নানা উপাদান ও উপকরণ। রয়েছে অপূর্ব আর্ট মিউজিয়াম সংগীত থিয়টার দেখার ব্যাবস্থা নৌকায় চড়ে ঘুরে বেড়ানোর সুবিধা উঁচু মানের শপিং সেন্টারসহ বহু কিছু।

12107917_10207630881829109_480376450545748315_nশহরের বিভিন্ন স্থানে রয়েছে বাইক ভাড়ার ব্যাবস্থা। কেউ হাটতে না চাইলে ক্রেডিট কার্ড দিয়ে ঘন্টা হিসাবে বাইক ভাড়া করে ঘুরতে পারেন ক্যাস্কো উপসাগরেরর নয়োনাভিরাম পাড় ঘেষে তৈরী রাস্তা দিয়ে।

পর্যটকদের জন্যে অত্যন্ত আকর্ষনীয় বিষয় হচ্ছে লবস্টার ল্যান্ড খ্যত পোর্টল্যান্ডের লাকি ক্যাচ ক্রুইজ। লবস্টার জেলেরা কিভাবে সাগর থেকে লবস্টার ধরেন তা থেকে শুরু করে সেই লবস্টার কি কি প্রক্রিয়া পার হয়ে খাবার টেবিলের সুস্বাদু দামি খাবারে পরিণত হয়, পুরো প্রক্রিয়ার অভিজ্ঞতা অর্জন করা যায় এই ক্রুইজের মাধ্যমে। হার্ডশেল, শেড্ডারস, শর্টস, কালস, কিপার্স; লবস্টারের নানা প্রকারভেদ সম্পর্কে জানা যায়।

পোর্টল্যান্ড শহরটি শিল্প অনুরাগীদের জন্য কম আকর্ষনীয় নয়। রয়েছে একটি আর্ট কলেজ, একটি আর্ট মিউজিয়ামও। পোর্টল্যান্ড মিউজিয়াম অব আর্ট নামের সেই মিউজিয়ামটি ছোট হলেও সেখানে রয়েছে দৃষ্টিনন্দন শিল্পকর্ম। আমেরিকান ও নিউ ইংল্যান্ডের নামী শিল্পীদের কাজ রয়েছে সেখানে। এছাড়া পাবলো পিকাসো পিয়েরে অগাস্তেসহ রয়েছে ইউরোপের জগদ্বিখ্যাত শিল্পীদের শিল্পকর্মও। মজার ব্যাপার হচ্ছে প্রতি মাসের প্রথম শুক্রবার পুরো শহরই যেনো রুপ নেয় আর্ট গ্যালারীতে। লাইব্রেরী কফিশপ দোকান সর্বত্রই স্থানীয় ও বাইরের শিল্পীদের নতুন কাজ প্রদর্শন করা হয়।

এবার আসা যাক সংগীত ও নাটকে। পোর্টল্যান্ড সিম্ফনি অর্কেস্ট্রা স্থানীয়দের কাছে ভীষণ জনপ্রিয়। পুরো যুক্তরাষ্ট্রেই এটি সুপরিচিত। নাট্যাংগনে সুপরিচিত এখানকার স্টেট থিয়েটার। নাটক মঞ্চায়নের জনপ্রিয় একটি স্থান হচ্ছে পোর্ট সিটি মিউজিক হল।

10390524_10207630884389173_2046696173668839456_nকবি লংফেলোর নামে এখানে রয়েছে বেশকিছু প্রতিষ্ঠান। ওয়ান লংফেলো স্কয়ার তার একটি। এখানে ফোক জ্যাজ সেল্টিক বাস্কসহ অনুষ্ঠিত হয় অনেক কিছু। বড় শহরগুলোর মত পোর্টল্যান্ডেও রয়েছে গাইডেড ট্যুর প্যাকেজ। শহরের বিভন্ন দর্শনীয় স্থান বাসে করে পর্যটকদেরকে ঘুরিয়ে দেখানো হয় এ ট্যুর প্যাকেজে।

পোর্টল্যান্ডের মতো একটি উপকুলীয় শহরে বেড়াতে গিয়ে কেউ যদি পানিতে না ঘোর। তবে তা অপূর্ণ থেকে যাবে। ক্যাস্কো সাগরে জাহাজে করে পর্যটকদের ঘোরানোর জন্যে রয়েছে ক্রুইজ প্যাকেজ। পোর্টল্যান্ড স্কুনার কোম্পানী এবং মেইন সেইলিং এ্যাডভেঞ্চার নামের দুটি প্রতিষ্ঠান মূলত এই ক্রুইজ প্যাকেজ দেয়।

কেউ যদি দা ডাউনিন্ট ডাক ট্যুর প্যাকেজ নেন তবে পোর্টল্যান্ডের জল ও স্থল দুটোই ঘোরা হয়। রাজহাসের আদলে তৈরী ডাউনিন্ট ডাক আসলে উভচর যান। যখন রাস্তায় চলে তখন এটি গাড়ী। আর যখন পানিতে চলে তখন নৌকা ট্রলার বা জাহাজ। সুন্দর দেখতে ডাউনিন্ট ডাক না চড়লেও আনন্দ শতভাগ অপূর্ন থাকবে।