ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

ছোট বেলা থেকেই আমার মনে একটা প্রশ্ন আসতো যে ইসলাম ধর্ম সত্যি কিনা ? কারণ চারিদিকে এত ধর্মের ছড়াছড়ি। ক্লাস 7 এ পড়ার সময় একটা বই পেলাম। বইটার নাম হযরত ঈসা আলাইহিস সাল্লাম বই টা পড়ে বুদ্ধি একটু খুললো। তো দেখলাম পৃথিবীতে মোট ৪ টি ধর্ম আছে। ইসলাম, হিন্দু, খ্রিষ্টান ও বৌদ্ধ। শিখ ধর্ম টা মূলত হিন্দু ও ইসলামের সংমিশ্রন। এদের মাঝে খ্রিষ্টান ধর্মের প্রবর্তক হলেন যিশু খ্রিষ্ট যাকে আমরা হযরত ঈসা আলাইহিস সাল্লাম হিসাবে বলি। হযরত ঈসা আলাইহিস সাল্লাম এর মায়ের নাম মরিয়ম যাকে খ্রিষ্টানরা মাতা মেরী হিসাবে ডাকে। কোরানে মরিয়ম নামে একটি সূরা আছে। আবার আল-ইমরান নামেও একটি সূরা আছে যেখানে হযরত ঈসা আলাইহিস সাল্লাম সম্পর্কে অনেক কথা আছে। হযরত ঈসা আলাইহিস সাল্লাম এর নানার নাম হচ্ছে ইমরান। তো দেখলাম আমরা হযরত ঈসা আলাইহিস সাল্লাম কে ১ জন রাসূল হিসাবে স্বীকার করলেও খ্রিষ্টানরা আমাদের নবী মুহাম্মাদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে স্বীকার করে না। তবে খ্রিষ্টানরা মুসা আলাইহিস সাল্লাম কে ১ জন রাসূল হিসাবে স্বীকার করে। ইহুদী ধর্মের প্রবর্তক হলেন মূসা আলাইহিস সাল্লাম যাকে আমরা ১ জন রাসূল হিসাবে মানি। আল-কোরানে বনী ইসরাঈল নামে এক টি সূরা আছে যেখানে ইহুদী সম্প্রদায় সম্পর্কে অনেক আলোচনা করা হয়েছে। আবার ইহুদীরা হযরত ঈসা আলাইহিস সাল্লাম কে ১ জন রাসূল হিসাবে স্বীকার করে না। তারা হযরত ঈসা আলাইহিস সাল্লাম কে জারজ সন্তান বলে, নাউযুবিল্লাহ। এ নিয়ে মধ্য যুগে ইহুদী ও খ্রিষ্টানদের মধ্যে অনেক যুদ্ধও হয়েছে। তবে মজার ব্যাপার হলো ইহুদী ও খ্রিষ্টান রা উভয়েই হযরত ইবরাহিম আলাইহিস সাল্লাম কে খুব শ্রদ্ধা করে। আমরা মুসলমানেরাও হযরত ইবরাহিম আলাইহিস সাল্লাম কে খুব শ্রদ্ধা করি। তো দেখা যাচ্ছে আমরা মুসলমানেরা সকল নবী রাসূল কে শ্রদ্ধার সাথে স্বীকার করি। যেটা আল-কোরানে সূরা বাকারার ২৮৪ নং আয়াতে আল্লাহ সুবহানাতায়ালা বলেছেন। কিন্তু খ্রিষ্টান ও ইহুদীরা আমাদের নবী মুহাম্মাদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে স্বীকার করে না। এখানেও বুঝা যাচ্ছে যে ইসলাম সত্য, কারণ ইসলাম সত্য বলেই মুসলমান রা সকল নবী রাসূল কে শ্রদ্ধার সাথে স্বীকার করে। যদি মুসলমান রা যে কোন নবী-রাসূল কে অস্বীকার করতো তাহলেই ইসলামের সত্যতার ব্যাপারে প্রশ্ন দেখা যেতো। কিন্তু আমরা মুসলমান রা সকল নবী রাসূল কে শ্রদ্ধার সাথে স্বীকার করতে বাধ্য। তাই ইসলাম সত্য।