ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

এ দেশে মুসলমান ও হিন্দুরা কোন ঝামেলা ছাড়াই দীর্ঘ দিন বসবাস করে আসছে। যে রাষ্ট্র জনগনের মৌলিক চাহিদা মিটাতে পারে না সেখানে নতুন করে ধর্ম নিরপক্ষতা নিয়ে আসা কি খুব দরকার ? ধর্ম নিরপেক্ষতা মানে ধর্মহীনতা। ৯০% মুসলমানের দেশে আমরা সংবিধানে নতুন করে ধর্ম নিরপেক্ষতা নিয়ে আসাকে সমর্থন করি না। ইন্ডিয়ার ব্যাপারটা আলাদা। সেখানে প্রায়ই দাঙ্গা হয়। কিছুদিন আগে উরিষ্যায় খ্রিস্টান সন্নাসীদের উপর হিন্দু স্বেচ্ছাসেবক দল বজরংগীর কর্মীরা চরম নিওর্যাতন চালিয়েছে, ২০০২ সালে গুজরাটের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে মুসলমানদের উপর চরম নির্যাতন চালায়। এমনকি যুক্তরাষ্ট্র গুজরাটের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কে ভিসা পর্যন্ত দেয় নি। তাই ইন্ডিয়ায় যদি ধর্ম নিরপক্ষতা নিয়ে আসা হয় তাহলে ইন্ডিয়ায় একমাত্র হিন্দুরা ছাড়া আর কেউ বাচতে পারবেনা। হালাকু খান যেমন বাগদাদ নগরী ধ্বংস করে দিয়েছিল তেমন ভাবে ইন্ডিয়ার অনেক ভূ-খন্ড যেখানে মুসলমান ও খ্রিষ্টানরা সংখ্যা গরিষ্ঠ সেইসব এলাকা বিলুপ্ত হয়ে যাবে। তাই ইন্ডিয়ার কোন সরকারই চায় না ধর্মনিরপক্ষতা নিয়ে আসতে। তাহলে বাংলাদেশ সরকার কেন নতুন করে এই বিতর্ক টাকে নিয়ে আসতে চাচ্ছে ? তাছাড়া এটা করলে মুসলমান দেশ গুলির সাথে সম্পর্ক খারাপ হবে। দেশ তো গৃহ যুদ্ধের দিকে যাচ্ছেই। ওয়ান ইলেভেন এর পরও কি রাজনৈতিক দলগুলির শিক্ষা হয় নি ?

***
ফেসবুক লিংক