ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

বর্তমান সমাজে অনেক সুস্থ সবল মুসলমান ছেলে রোযা রাখে না। তারা কোন জটিল অসুখ বিসুখেও আক্রান্তও নয়। তাহলে তারা কেন রোযা রাখছে না ? রোযার ভিতরে অনেক বড় বড় রুহানিয়্যাত ব্যাপার রয়েছে। যেমন ৩ বেলা অর্থ্যাৎ সকাল, দুপুর ও বিকালের নাস্তা না খেলেও ক্ষুধার তেমন কোন কষ্ট অনুভব হয় না। কিন্তু অন্য সময় আপনি যদি সকালের নাস্তা আর দুপুরে ভাত না খান, তাহলে ক্ষুধার জ্বালায় আপনি অস্থির হয়ে যাবেন। কিন্তু আল্লাহ সুবহানাতায়ালার অপার অনুগ্রহে রমযান মাসে কোন কষ্টই অনুভব হয় না। চিন্তা করে দেখুন আপনি প্রায় ১৫ ঘণ্টা না খেয়ে আছেন, কিন্তু তা মনেই হয় না। তাছাড়া চিকিৎসা বিজ্ঞানেও সারাদিন খাওয়া দাওয়া করা ভাল দৃষ্টিতে দেখা হয় না। মাঝে মাঝে খাবার দাবারে বিরতি দেওয়া খুবই ভাল। আর মানবিক দৃষ্টিতে দেশের অন্য ক্ষুধার্ত মুসলমানদের কষ্ট বুঝাটাও আমাদের দরকার। তাছাড়া জীবনে আমাদের এমন সময়ও আস্তে পারে যে ক্ষুধা লাগলেও আপনি খাবার পাবেন না, যেমন কোন কারনে যদি কখনো আপনি জেলখানায় যান। এই জন্য সবাই কে বলছি রোযা রাখার অভ্যাস করতে।