ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ

chilahati

নীলফামারী জেলার উত্তরের অঞ্চল বাংলাদেশ ভারতের সীমান্ত এলাকার আরেক নাম চিলাহাটী। আমি যখন ৬ষ্ঠ/৭ম শ্রেণীর ছাত্র তখনও এই চিলাহাটী দিয়ে বিভিন্ন দেশের পর্যটকগণ এই চিলাহাটী স্থল শুল্ক দিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশে আসত এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল পর্যটন করতেন। এই স্থল শুল্ক আমার মনে হয় ব্রিটিশ আমল থেকেই চালু ছিল। কিন্তু গত বিএনপি আমলে আমাদের এই চিলাহাটীর স্থল শুল্কটি বন্ধ করে দিয়ে সেটাকে স্থানান্তর করে পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়ার বাংলাবান্ধা এলাকায়। যার ফলে আমাদের এই চিলাহাটীর দীর্ঘদিনের স্থল শুল্কটি বন্ধ হয়ে যায়। পরবর্তীতে আমাদের এই চিলাহাটীর দীর্ঘদিনের পুরানা ব্রডগেজ রেললাইনের কর্মকাণ্ডও লোকসানের নামে প্রায় বিলুপ্তির পথে নিয়ে যায়। আগে অনেক ট্রেন চালু ছিল কিন্তু বর্তমানে সকাল বিকাল মাত্র দুটি ট্রেন চালু আছে। তাও আবার অনিয়মিত। আর এই রেললাইনগুলোও সংস্কারের নামে আস্তে আস্তে উপরে নিয়ে যায়। কাজেই চিলাহাটীর এই রেলস্টেশনের গুরুত্বও আস্তে আস্তে কমতে থাকে। আর স্থল শুল্ক তো আজ একেবারেই বন্ধ আছে।

chilahati2

যা হোক, এই অবহেলিত চিলাহাটীর রেলস্টেশনটি আজ আবার জাকজমকপূর্ণ হয়ে উঠল মাননীয় রেলমন্ত্রী মজিবুল হক (এম.পি), মাননীয় সাংস্কৃতি মন্ত্রী আাসদুজ্জামান নুর (এম.পি), এডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন (এম.পি), এই এলাকার মাননীয় এম.পি আফতাব উদ্দীন সরকার, মাননীয় রেলমন্ত্রালয়ের উপ-সচিব, রেলের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা কর্মচারীগণ এবং স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবর্গের পদধুলিতে। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়গণসহ এম.পি মহোদয়গণ এসেছেন আমাদের এই চিলাহাটী বাসীর দীর্ঘদিনে আশা আকাঙ্খা, সর্বোপরি স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে। মাননীয় রেলমন্ত্রী মজিবুল হক সবাইকে নিয়ে আজকে নীলসাগর ট্রেনের শুভ উদ্বোধন করলেন দুপুর ১২ টা থেকে ১২.৩০ টা নাগাদ। আর সেই সাথে পূরণ হলো চিলাহাটী বাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন।

সামান্য হলেও আমাদের বর্তমান শান্তনা যে আমাদের চিলাহাটী থেকেই এখন থেকে আমরা সরাসরি ঢাকায় যাতায়াত করতে পারব। যা আমাদের এলাকার উন্নয়নের একাংশ। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় তার বক্তব্যে বলেন, তিনি এখানকার সাধারণ মানুষের অভর্থ্যনা ও অতিথি পরায়নতায় মুগ্ধ এবং তিনি আরো বলেন তিনি এখানকার মানুষের সব আশা পূরণ করার চেষ্টা করবেন। আর আমাদের নীলফামারীর গর্ব মাননীয় মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর বলেন, আমরা আমাদের স্বপ্নগুলো পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা এই সরকার তথা এই সরকারের মন্ত্রী মহোদয়গণের পিছু ছাড়ব না।