ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

 

ইসলাম প্রচারের যুগে আরবের অবিশ্বাসী ও মোনাফেকদের চরিত্রের সাথে ( সুরা আল- বাক্বারা) বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধীদের রাজনৈতিক আচরণের মিল পাওয়া যায়। নিশ্চিতই যারা অস্বীকার ও বিরোধীতা করেছে বাংলাদেশের স্বাধীনতা— তাদেরকে ধর্মীয় সাম্প্রদায়িকতা ও সন্ত্রাসের ভয়াবহতা সম্পর্কে ভয় প্রদর্শন করা হোক বা না হোক তাতে কিছুই আসে যায় না; তারা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে বিশ্বাস করবে না। হীনস্বার্থ ও ধর্মান্ধতা তাদের অন্তঃকরণ ও শ্রবণেন্দ্রিয় খতম করে দিয়েছে; আর তাদের চোখ পর্দায় ঢেকে গেছে। তাই তারা ধর্মের নামে গণহত্যা, ধর্ষণ ইত্যাদির অমানবিকতা অনুভব করে না।

তাদের মাঝে কিছু লোক ( খোন্দকার মুশতাক, জিয়া গং ) আছে যারা বলে আমরা স্বাধীনতায় বিশ্বাসী; আসলে তারা বাংলাদেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী নয়। তারা স্বাধীনতার পক্ষের লোকদের ধোঁকা দেয়। তাদের অন্তঃকরণ ব্যাধিগ্রস্ত। তাদেরকে যখন বলা হয় দাঙ্গা-হাঙ্গামা সৃষ্টি করো না; তখন তারা বলে আমরাই শান্তি ও মিমাংসার পথ অবলম্বন করছি। আসলে তারাই দাঙ্গা- হাঙ্গামা সৃষ্টিকারী যা তারা স্বীকার করতে চায় না।

আর তারা যখন স্বাধীনতাকামী মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে মিশে; তখন তারা বলে আমরাও মুক্তিযোদ্ধা। আবার যখন তারা রাজাকারদের সাথে মিশে; তখন তারা বলে আমরা তো তোমাদের সাথে আছি এবং আমরা তোমাদের ভাই (তারেকের বক্তব্য)। এরা ঐ সকল ব্যক্তি যারা স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে না। ফলে তারা যুদ্ধাপরাধী ও মানবতাবিরোধী অপরাধীদের সমর্থন করে এবং সত্যকে দেখতে পায় না। তারা বধির, মুক ও অন্ধ। তারা কখন স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পথে ফিরবে না।