ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

সুরা নাকারা অায়াত ১৭৮— হে ইমানদারগণ ,তোমাদের প্রতি নিহতদের ব্যাপারে কেসাস ( সমপরিমাণ প্রতিশোধ ) গ্রহন বিধিবদ্ধ করা হয়েছে। স্বাধীন ব্যক্তির বদলে স্বাধীন ব্যক্তি; দাসের বদলে দাস; নারীর বদলে নারী। অবশ্য নিহত ব্যক্তির পক্ষ থেকে তার উত্তারিধিকারী বা ভাই যদি হত্যাকারীকে ক্ষমা করে; সে ক্ষেত্রে রক্তপণ বা ক্ষতি পূরণের ব্যবস্থা করতে হবে।
আয়াত ১৭৯– হে বুদ্ধিমানগণ, কেসাসের ( মৃত্যুদন্ডের )মধ্যে তোমাদের জন্য জীবন নিহিত রয়েছে।

সুরা আন- নিসা- অায়াত ৯২— এই আয়াতে বিভিন্ন প্রকারের হত্যার প্রতিবিধান রূপে নিহত ব্যক্তির স্বজনদেরকে প্রদত্ত রক্তপণের বিধান দেয়া হয়েছে।
অায়াত-৯৩– যে ব্যক্তি স্বেচ্ছাক্রমে মুসলমানকে হত্যা করে; তার শাস্তি জাহান্নাম, তাতেই সে চিরকাল থাকবে। আল্লাহ তার প্রতি ক্রুদ্ধ হয়েছেন; তাকে অভিসম্পাত করেছেন এবং তার জন্য ভীষণ শাস্তি প্রস্তুত রেখেছেন।

বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার বিচার বন্ধ করতে জিয়া সরকারের প্রণীত “ইনডেমনিটি” এবং অপারেশন ক্লিনহার্ট হত্যার বিচার বন্ধ করতে খালেদা জিয়া সরকারের ইনডেমনিটি আইন উল্লেখিত আয়াত অনুসারে কোরানের বিধি বিরোধী আইন। সুতরাং জিয়া ও খালেদা জিয়া এবং তাদের সরকার কোরান অবমাননাকারী এবং ইনডেমনিটি আইনের উদ্যোক্তা হিসেবে ততকালীন আইন মন্ত্রী ও কোরান অবমাননাকারী।

যুদ্ধাপরাধীরা নরহত্যাকারী। অতএব যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিরুদ্ধে যারা তারা ও কোরানের বিধি অবমাননাকারী। কোরানের বিধি মেনে মুসলমান হতে আমাদের বিবেক জাগ্রত হোক।