ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

 

ক্রিকেট প্রেমী যারা আজকের ভারত বনাম ইংল্যান্ডের ম্যাচটি মিস করলেন, তারা কেবল একটি অসাধারন খেলা দেখা থেকেই বঞ্চিত হলেননা। সেই সাথে বঞ্চিত হলেন এবারের বিশ্বকাপে সৃষ্ট একটি ইতিহাস থেকেও। এই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি বার বার হয়না। ক্রিকেট ইতিহাসে এমন খেলার পুনরাবৃত্তি খুব বেশি নেই। আর এক বিশ্বকাপে এমন খেলা একাধিক হওয়ারও রেকর্ড নেই। তাই বলব যারা দেখেননি তারা সত্যিই মিসকরলেন। আর যারা দেখেছেন তারা সৌভাগ্যবান।

প্রথম দিকে ইংল্যান্ডের ট্রেস আর বিল এর ইস্পাত দৃঢ় জুটি দেখে মনে হচ্ছিল জয়টা তাদের কাছে সময়ের ব্যপার মাত্র। কিন্তু ক্রিকেট গোল বলের খেলা। জয় পরাজয় এখানে উভয় দলকেই সমানভাবে তাড়া করে বেড়ায়। এই সত্যটি শেষ বল পর্যন্তও প্রতিষ্ঠত ছিল। তবে জহিরখান এসে যখন পর পর তিন উইকেট গুড়িয়ে দিলেন তখন ভারতীয়রা আবার আশায় বুক বাঁধলো। ইংল্যান্ডের শক্তিশালী জুটি ট্রেস আর বিলের পতনের পর আর কেউই সেই অবস্থানকে পোক্ত করতে পারেননি। এর পর বাড়তে থাকে স্নায়ুর চাপ। উভয় দলের জন্যই। কখনো রান রেট কমে জয়ের পাল্লা ইংল্যান্ডের দিকে হেলে পড়ে আবার কখনো রান রেট বেড়ে সেই পাল্লা হেলে পড়ে ভারতের দিকে। শেষ পর্যন্ত যা হলো তা হয়তো খুব কম মানুষই অনুমান করতে পেরেছিলেন। হ্যা, ম্যাচ ড্র। আর এই ড্র অনুমান করতে পারা কঠিন ছিল বলেই আজকের এই খেলাটি ইতিহাসে ঠাঁই করে নিল।