ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

কর্মসূচীর উদ্ভাবক- মাননীয় স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু।

প্রয়োগ করা হচ্ছে- ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের উপর।

প্রয়োগের কারণ- সারাদেশে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা অনেক আগে থেকেই ফেনসিডিল, হেরোইন, ইয়াবা সহ নানা রকম মাদকের প্রধান গ্রহীতা। এসব মাদক বর্তমানে বেশী পরিমাণে গ্রহণের ফলে ছাত্রলীগ অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে সহিংস হয়ে উঠেছে। এর প্রেক্ষিতে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর মনে হয়েছে ছাত্রলীগের জন্য মাদকহীন নেতৃত্ব প্রয়োজন। কিন্তু এ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়নি। ধারণা করা যেতে পারে মাদকহীন কাউকে পাওয়া যায়নি। গেলে তা ঘটা করে প্রকাশ করার কথা।

জনগণের মন্তব্য- যে সংগঠনের কর্মীদের রক্ত পরীক্ষায় পাস করে নেতৃত্বের যোগ্যতা অর্জন করতে হয়, সে সংগঠন তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত অধঃপতনের কোন স্তরে গিয়ে পৌঁছেছে তা ভেবে দেখা দরকার। এরা কি সত্যিকার অর্থে দেশ ও মানুষের স্বার্থ রক্ষা ও প্রতিনিধিত্ব করার যোগ্যতা রাখে?