ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

PMP

বর্তমান বিশ্বে সফলভাবে প্রকল্প সম্পন্ন করার গুরুদায়িত্ব পালন করেন নির্ধারিত প্রজেক্ট ডিরেক্টর বা প্রকল্প পরিচালক কিংবা প্রজেক্ট ম্যানেজার বা প্রকল্প ব্যবস্থাপক, যাঁরা সারা বছরই সরকারি অনেক কাজ পেতে পারেন। বিশ্বজুড়ে প্রকল্প ব্যবস্থাপনা এখন একটি সম্ভাবনাময় পেশা হিসেবে সমাদৃত। এ পেশায় আগ্রহী ব্যক্তিদের বিশ্বের সর্বোচ্চ সার্টিফিকেশন বা সনদটি দেয় আমেরিকার পেনসিলভানিয়ার প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউট (পিএমআই)। প্রতিষ্ঠানটির দেওয়া সার্টিফিকেশন বা সনদের নাম ‘প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট প্রফেশনাল’ (পিএমপি)।

কাজের ক্ষেত্র বাড়ায় বাংলাদেশেও আজকাল অনেকে পিএমপি সনদ পেতে আগ্রহী হচ্ছেন। পিএমআই ১৯৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হলেও বাংলাদেশে এর কার্যক্রম শুরু হয় ২০০৮ সাল থেকে। বর্তমানে বিশ্বের ১৮৫টি দেশ থেকে পিএমপি পরীক্ষা দেওয়া যায়। এবার জেনে নিন প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউটের পিএমপি পরীক্ষার নানা দিক।

কেন নেবেন এই সনদ
পিএমপি উত্তীর্ণদের জন্য কাজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে বিশেষ করে মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা, প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট বা পণ্য উন্নয়ন, এনজিও, বহুজাতিক কোম্পানি, টেলিযোগাযোগ ও সফটওয়্যারসহ তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি), ব্যাংকিং প্রভৃতি খাতে এ ধরনের পেশাজীবীর প্রচুর চাহিদা আছে। যেহেতু যেকোনো ধরনের প্রজেক্ট বা প্রকল্পের কাজ প্রজেক্ট ম্যানেজারের হাতে সম্পন্ন হয়ে থাকে, সেহেতু পিএমপি সনদটা থাকলে আপনার জন্য কাজ পাওয়াটা সহজ হতে পারে। বদৌলতে আপনি চাকরি করে বা চুক্তির ভিত্তিতে অনায়াসে অনেক টাকা আয় করতে পারেন।

পিএমপি সনদ নিতে হলে
পিএমপি পরীক্ষা দিতে চাইলে যেকোনো বিষয়ে গ্র্যাজুয়েট বা স্নাতক হলেই চলবে, সেই সঙ্গে দরকার ৩৬ ঘণ্টার প্রশিক্ষণ থাকা চাই। আর গ্র্যাজুয়েট না হলে সাড়ে সাত হাজার কর্মঘণ্টার অভিজ্ঞতা ও ৩৬ ঘণ্টার প্রশিক্ষণ লাগবে। সব ধরনের তথ্য দেওয়ার পর নির্ধারিত টাকা জমা দিয়ে পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে হবে। আবেদন ও পরীক্ষা দুটোই হবে অনলাইনের মাধ্যমে। আসন খালি থাকা সাপেক্ষে আপনার আবেদন গ্রহণ করা হবে। এরপর আপনার সুবিধামতো পরীক্ষার তারিখ ও সময় নির্ধারণ করা হবে। এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে www.pmi.org এই ওয়েবসাইটে।অনলাইনের মাধ্যমে আপনাকে চার ঘণ্টায় মোট ২০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা দিতে হবে। পরীক্ষার দিন নিজের পাসপোর্ট ও কনফরমেশন ই-মেইলের প্রিন্ট কপি সঙ্গে আনতে হবে, যা প্রবেশপত্র হিসেবে বিবেচিত হয়।

সময় ও খরচাপাতি কেমন
পিএমআইয়ের চাহিদা অনুযায়ী পিএমপি পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য ৩৬ ঘণ্টার ক্লাসরুমভিত্তিক প্রশিক্ষণ থাকা দরকার। আমাদের দেশে প্রফেশনাল ট্রিনিং হাউস GPA (Glocal Pro-Ace), মতো কিছু সংস্থা এই প্রশিক্ষণ দেয়। পিএমপির নির্ধারিত প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে, যা একজন আবেদনকারীর আবশ্যিক যোগ্যতা হিসেবে বিবেচিত। এই প্রশিক্ষণ নিয়ে পরীক্ষার্থীকে আবেদন করতে হবে। প্রফেশনাল ট্রিনিং হাউস GPA, এ ব্যাপারে ০৫ দিনের প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। এ জন্য প্রশিক্ষণার্থীদের ২0 হাজার টাকা ফি দিতে হয়। প্রফেশনাল ট্রিনিং হাউস GPA, এ ক্ষেত্রে মোট ৪0 ঘণ্টার প্রশিক্ষণ দেয়। এর ফলে কেউ কোনো কারণবশত পিএমআই সনদের জন্য পরীক্ষা না দিলেও প্রকল্প ব্যবস্থাপনার কাজ করতে পারেন। প্রশিক্ষণকালেই আপনি শিখে নিতে পারেন কীভাবে এবং কেমন করে প্রস্তুতি নেবেন।

প্রশিক্ষণের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন প্রফেশনাল ট্রিনিং হাউস GPA, বাসা-১৬, রোড-০৭, সেক্টর-০১, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০, ফোন: ০১৯২৬৬৯১২৮১, ০১৯২৬৬৯১২৮৩, ওয়েব সাইট: www.glocalproace.com