ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

 

ভারতের প্রখ্যাত ইসলামি শিক্ষাকেন্দ্র দারুল উলুম দেওবন্দ আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে গরু কোরবানি না করতে মুসলমানদের প্রতি আহবান জানিয়েছে।

দেওবন্দের ভাইস চ্যান্সেলর মওলানা আবুল কাসিম নোমানি আজ (রোববার) এক বিবৃতিতে বলেছেন, “হিন্দুদের ধর্মীয় অনুভূতির কথা বিবেচনা করে এ শিক্ষাকেন্দ্র আগামীকাল ঈদুল আজহার দিন গরু কোরবানি পরিহার করার আহবান জানাচ্ছে”। একইসঙ্গে তিনি পশু কোরবানির পর পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে ভারতের স্বাস্থ্য বিভাগকে সহযোগিতা করার আহবান জানিয়েছেন বলে বার্তা সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে।

দেওবন্দ মুসলমানদের জন্মদিনের অনুষ্ঠান পালন না করারও আহবান জানিয়েছে। একটি ফতোয়ার উদ্ধৃতি দিয়ে মওলানা নোমানি বলেছেন, তার ভাষায় এটি পশ্চিমা দেশগুলোর সংস্কৃতি হওয়ার কারণে ইসলাম তা করার অনুমতি দেয় না। আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় বা এএমইউ’র একজন ছাত্রের এক প্রশ্নের জবাবে কওমী ধারার এই ইসলামি শিক্ষাকেন্দ্র বলেছে, জন্মদিনের অনুষ্ঠান পালন ইসলামি শরীয়ার পরিপন্থি। ওই ছাত্র এএমইউ’র প্রতিষ্ঠাতা স্যার সৈয়দ আহমেদ খানের জন্মবার্ষিকী পালনের কথা তুলে ধরে দেওবন্দের কাছে ওই প্রশ্ন করেছিলেন। মওলানা নোমানি আরো বলেছেন, দেওবন্দ বিশ্বনবী (সাঃ)’র জন্মদিনের অনুষ্ঠান বা মিলাদুন্নবী (সাঃ) পালন করে না।

[ দ্যা হিন্দু ,
জি নিউজ, আইবিএন]

এরা ধর্মের নামে বিধর্মীদের পক্ষে কথা বলে। এমনিতেই মুসলিমরা সেখানে তাদের ধর্মকর্ম স্বাধীন ভাবে করতে পারেনা তার ওপর …..। আমাদের ধর্মে কুরবানীর ব্যপারে সুস্পষ্ট বিধান রয়েছে। কুরআন হাদীস বাদ দিয়ে সেখানে এসব দেওবন্দী ফতোয়া চলতে পারেনা। ধর্মীয় জ্ঞান যাদের সীমিত তারা বিভ্রান্ত হতে পারেন।