ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

পৃথিবীর যেসব দেশে লিখিত সংবিধান রয়েছে তাদের মধ্যে আমাদের সংবিধান অন্যতম। এমনকি নিউজিল্যন্ড, ইস্রাইল এবং ইউকে এর মত দেশে এখনো আমাদের মত লিখিত সংবিধান নেই। যেসব দেশে লিখিত সংবিধান রয়েছে সেসব দেশের সুপ্রীম অথরিটি হল সে দেশের সংবিধান আর যাদের নেই তাদের পার্লামেন্ট ই সভরেন অথরিটি। যাই হউক কাজের কোথায় আসি, আমাদের সংবিধানের ধারা 2A এ রাষ্ট্রের ধর্ম বিষয়ে বলা হয়েছে। এখানে বলছে, রাষ্ট্রের ধর্ম হবে ইসলাম কিন্তূ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান এবং অন্যরা সকলে সমভাবে যার যার ধর্ম পালন করবে। হে সব ই টিক আছে, কিন্তূ একটি অজানা প্রশ্ন আমাদের মধ্যে থেকে ই যাই সে টি হল কেন একটি রাষ্ট্রের একটি নির্দিষ্ট ধর্ম থাকবে। নিজে একজন মুসলিম হিসেবে যতটুকু জানি ও বুঝি যার যার ধর্ম তার জন্য এবং এটা শুধুই নিজের বিশ্বাস ও চর্চার বেপার। রাষ্ট্র টা কার ও একার সম্পত্তি না, প্রতিটি রাষ্ট্র ই একটি নির্দিষ্ট ভূমিকে নিয়ে গঠিত হয় আর যদি আমরা একটু গভীরভাবে চিন্তা করি তাহলে খুব সহজে ই বুঝতে পারি যে ভূমিতে মুসলিম, হিন্দু, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ ও আর ও বিভিন্ন মতের মানুষ বসবাস করে সে ভূমির উপর দাড়িয়ে তাকা রাষ্ট্রের ধর্ম কিভাবে হয় ইসলাম। সংবিধানের শুরুতে একটি ধর্মীয় বাণী তেমনি মানুষের একটি ভুল ধারনা। একবার চিন্তা করুন আমাদের যেমনি সংবিধানের উপর অধিকার রয়েছে তেমনিভাবে তাদের ও রয়েছে অধিকার। আমি বা আপনার কী শুনতে ভাল লাগবে যখন একজন অন্য ধর্মের মানুষ ওই পবিত্র আল কুরআনের বাণীকে না পড়ে অবজ্ঞা করে এড়িয়ে যাবে। আর এই টা আমাদের এমন কোনও ধর্মীয় পুস্তক নয় যেখানে এটি না থাকলে চলবে না। আমরা ইন্ডিয়ার মত মুসলিম অবহেলিত দেশের কথাই চিন্তা করি কই তারা ত তাদের সংবিধানের শুরুতে আমাদের মত তাদের ধর্মীয় বাণী দেইনি। আমরা আসলে বুঝার চেষ্টা করি না এগুলো ধর্মপ্রেম না বরং এগুলোর মাধ্যমে ধর্মকে ছোট করা হয়।

দয়া করে আমায় ভুল বুঝবেন না, আমি আওয়ামী বা জাতীয়তাবাদী কোনও দলের বা মতেরই অনুসারী নয়। কীভাবে আমরা তাদের অনুসরণ করব বলুন, যারা সার্থ ও পাওয়ার এর প্রয়োজনে যা ইচ্ছে তাই করে বেরাই। সবকিছু বাদ দিয়ে আমরা যদি শুধুমাত্র ধর্ম নিয়ে দু দলের কার্যকলাপগুলু একটু বুঝার চেষ্টা করি তবে এসব ভণ্ডদের মুকুশ আমরা খুব সহজে উম্মোচন করতে পারি।
ধর্ম মানুষের অমূল্য জিনিসগুলুর মধ্যে শ্রেষ্ট। আর সেই ধর্মকে নিয়ে কেও সুযোগবুঝে বেবসা করে আবার কেও তাকে পূজী করে কাহিনী রচনা করে।

যে লাও …

বর্তমান আওয়ামী সরকারের কোথায় বলি যারা ধর্ম নিরপেক্ষতায় বিশ্বাসী বলে দাবি করে নিজেদের। কিন্তু আমরা কী কখনো ভেবে দেখেছি তাদের কথা বিশ্বাস ও মতের সাথে বাস্তবতার কতটা অমিল। আমরা কী কখনো প্রশ্ন করেছি তাদের কাছে ধর্মনিরপেক্ষতায় বিশ্বাসী হয়ে কীভাবে আপনারা একটি নির্দিষ্ট ধর্মকে রাষ্ট্র ধর্ম হিসেবে স্বীকৃতি দেন? কীভাবে ধর্ম নিরপেক্ষ একটি রাষ্ট্রের সংবিধানের শুরু হই একটি নির্দিষ্ট ধর্মীয় বাণী দিয়ে? একদিকে আপনারা বলবেন রাষ্ট্র পরিচালনার মূলনীতিতে ধর্ম নিরপেক্ষতার কথা আর অন্যদিকে রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম। আপনাদের অবস্থান মত ও পথের বিষয়টা আসলে আমার কাছে কুলাসা না। ধর্ম নিরপেক্ষতার আসল অর্থ খানা শিখে নিলে বাঙালি জাতি উপকৃত হবে। প্রয়োজনে এ বিষয়ে ধর্ম নিরপেক্ষ আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ও আপনাদের কাছের বন্ধু ইন্ডিয়ার কাছ থেকে সাহায্য নিতে পারেন।

সে কদু …

অন্যদিকে জাতীয়তাবাদী দল বলছে তারা ধর্মীয় অনভূতিতে বিশ্বাসী। সর্বজন জানেন যে আপনাদের সাথে ধর্মীয় একটি দল ও । আপনাদের কাছে ছোট্ট একটি প্রশ্ন ধর্মীয় অনভূতিতে বিশ্বাসী একটি দলের শাসনামলে কী করে অমর দেশের আওলিয়া ও সুফি দরবেশের মাজারে প্রকাশে বোমাবাজি হই? বাংলাদেশ সুফি দরবেশ আওলিয়াদের দেশ, তারা আমাদের শেকড়। তারাই বাংলাদেশে ইসলামের ধারক ও বাহক ছিলেন এবং তাদের ছাড়া বাংলাদেশের ইসলামকে কল্পনায় করা যাই না। বিরোধীদলীয় নেত্রী আপনি কী জানেন, আপনি কোন কেটাগরির মুসলমানদের সাথে যত বেধে আছেন? সায়েদি সাহেবের মাহফিল থেকে এসে এক বন্ধু কে বলতে শুনেছিলাম উনি আওলিয়াদের মাজারকে নিয়ে বলেছেন, ওটা না কী হিন্দুদের যাওয়ার স্থান। জনাব সায়েদি সাহেবকে আমি বলতে চাই আপনি কী জানেন এ কথা বলার পর আপনার ইমান নিয়ে ও চাইলে প্রশ্ন তুলা যাই। কারণ আল্লাহ পবিত্র কুরআনে বলে দিয়েছেন, “তোমরা আল্লাহর কথা সরণ কর, আল্লাহর রাসূলের কথা সরণ কর এবং আওলিয়া কেরামদের স্মরণ কর”। আল্লাহ বনাম সায়েদি সাহেব হাস্যকর মনে হবে সবার কাছে (নাউজুবিল্লাহ)। তো দয়া করে এসব ভণ্ডামি বন্ধ করেন।

অমি জানি আমরা সবাই বুঝি জানি এ দুইটি দল সম্পর্কে যারা আমাদের ধর্মকে নিয়ে একধরনের বেবসা করছে, আর সাথে সাথে আমাদের কিছু মানুষ তাদের উস্কানিতে নাচছে। মুসলিম হয়ে সংবিধানে রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম আর বিসমিল্লাহর আন্দোলন না করে যদি পারেন নির্ভুল বিশুদ্ধ ও একমাত্র আল্লাহর সংবিধান কে কায়েম করার আন্দোলন করেন প্রতিজ্ঞা করলাম সেখানে সবার প্রথমে আমাকে পাবেন।