ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!

আপনার সদয় অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, ২০০৬ সালের ১৩ অক্টোবর ড.ইউনুস নোবেল পুরষ্কার অর্জন করেন। নোবেল পুরষ্কার টাকা দিয়ে কেনা যায়না। বরং এর সাথে ড. ইউনুস ১০ মিলিয়ন সুইডিশ ক্রনর (১.৩৫ মিলিয়ন আমেরিকান) ডলার পান। সেই টাকাও তিনি নিজের বিলাসিতার জন্য ব্যয় করেন নাই। বরং গরিব মানুষের সাহায্যের জন্য ব্যয় করেছিলেন। আপনি সে খবর জানেন না। কারন তিনি আপনার মতো গলাবাজ নয়।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!

আপনী সংসদে ঘোষনা দিয়েছেন যে শেয়ার বাজার বুঝেন না। তারপরও আপনি এরকম আরো অনেক প্রয়োজনীয় বিষয় না জেনেও প্রতিদিন উল্টা-পাল্টা মন্তব্য করে সাধারণ মানুষের হয়রানি বাড়ান। কারন আপনি সাধারণ মানুষের ভালো-মন্দ নিয়ে মাথা ঘামান না।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!

আপনি হয়তো জানেন না যে সারা বিশ্ব ড.মুহাম্মদ ইউনুসকে “the world’s banker to the poor” বলে আখ্যায়িত করে। তাঁর আবিষ্কৃত ক্ষদ্র-ঋণ শুধু এশিয়া-আফ্রিকা নয় বরং ইউরোপ আমেরিকার মতো উন্নত বিশ্বেও গরীব-মানুষের জন্য সাহায্যের একটা প্লাটফর্ম এনে দিয়েছে। তাদের কাছে ড. ইউনুস একজন রোল-মডেল । এটা বাংলাদেশের জন্য কতটুকু সম্মানের তা বুঝার মতো ধৈর্য কিংবা সাধ্য আপনার নেই।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!

নোবেল বিজয়ী ড.মুহাম্মদ ইউনুস আপনার কোন ক্ষতি করেন নি। তিনি তো আপনার প্রধানমন্ত্রীর পদটা নিয়ে নিতে চান নাই। আর চাইলেও আপনার কিছু বলার নাই। কারণ বাংলাদেশ গণতান্ত্রীক দেশ। সকল কিছুতে সব মানুষের সমান অধিকারের কথা এখনো বাংলাদেশের সংবিধানে লেখা রয়েছে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!

ড. ইউনুসকে অসম্মানিত করার অধিকার আপনাকে কে দিলো? গ্রামীন ব্যাংকের ৭৫% অংশের মালিক হলো গরিব জনগণ। তাঁদের ঘাম ঝরানো টাকায় গড়া গ্রামীন ব্যাংক কে নিয়ে ছিনিমিনি খেলার পরিণাম কতটুকু ভয়ংকর হবে তা বুঝার মতো শক্তি আপনার কিংবা আপনার চারপাশে ঘুরঘুর করা চাটুকার গুলার নাই।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!

ড. ইউনুসকে তাঁর নিজ হাতে গড়া সংগঠন হতে বিতাড়িত করে বাংলাদেশীদের কতটুকু লজ্জিত করেছেন তা আপনি বুঝবেন না। কারন সে যোগ্যতা আপনার নাই। শুধু মনে রাখবেন, দেশটা আপনার বাপের নয়।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!

আপনি সাধারণ জনগণের ভোটে নির্বাচিত একজন প্রধানমন্ত্রী। এমন আচরণে ড.ইউনুস নয়, বরং আপনি নিজে ছোট হয়েছেন। হিংসুক মানুষ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী!

বাংলাদেশের জন্য বিরল সম্মান বয়ে আনা ড.ইউনুসের প্রতি আপনার এমন নির্লজ্জ আচরণের খুব নির্মম জবাব একদিন অবশ্যই পাবেন।

(বিবিসি, সিএনএন, দি গার্ডিয়ান, সানডে টাইমস এবং আলা-জাজিরা থেকে শুরু করে প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের প্রায় সকল মিডিয়ায় ড. ইউনুস কে নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের চরম নির্বোধের মত আচরণ নিয়ে প্রতিদিন যেসব খবর প্রচার হচ্ছে তার কিছুই কি সরকারের কানে যায়না? তাছাড়া সাধারণ মানুষ কতটুকু ক্ষুব্ধ হয়েছেন তার কিছুটা সবার ফেসবুক-স্ট্যাটাস দেখেই আন্দাজ করা যায়।)