ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

জন্মের সময় আমি খুব কেঁদেছিলাম
কিন্তু এখন আমার সব কিছুতেই হাসি পায়।
আমি জন্মের প্রয়োজনে ছোট হয়েছিলাম
এখন মৃত্যুর প্রয়োজনে বড় হচ্ছি।
– নির্মলেন্দু গুন

এখন আমার সব কিছুতেই হাসি পায়। আসলেই হাসি পায়। আজ সারাদিনই হেসেছি। হরতালকে নিয়ে কি খেলা চলছে! কি মিথ্যাচার করা হচ্ছে একে অপরকে নিয়ে। টিভি চ্যানেলগুলোতে শুধু একই সংবাদ, দেশে আর ভাল কিছু নেই। একি এক আজব দেশে আমরা বাস করছি। যে দেশে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি বাতিল করার জন্য সংবিধানে সংশোধনী হয়, নিজের রাজনৈতিক দলের লোকদের বাঁচানোর জন্য মামলা তুলে নেওয়া হয়। ক্ষমতায় গেলে বলে আমরা আর হরতাল করব না। সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি করলেও সোনার ছেলে বলে দলে বরণ করে নেওয়া হয়। মিথ্যা বানোয়াট মামলা তৈরী কি সুন্দর নাটক করা হয়। আমরা জনগন এক একটা জারজ, বাপ মা হীন সন্তান। যাদের জন্মের কোন ঠিক ঠিকানা নেই।

আমরা কখনোই হরতাল সমর্থন করিনা। গত কয়েক বছরের অভিজ্ঞতায় যা দেখেছি তা হল বিরোধী দল কোন একটা ছুতো পেলেই হরতাল ডাকে,এবং তা হয় পুরোটাই তাদের স্বার্থ সিদ্ধির জন্য। তারা কেউই জনগনের কথা ভাবেনা। এই হরতাল সংস্কৃতি আর কতদিন চলবে? আর কতদিন চলবে গণ তান্ত্রিক রাজতন্ত্র?

আমার মতে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি বহাল রেখে আবার “মাইনাস টু ফর্মুলা” প্রয়োগ করা উচিত। এদেশের দুই নেত্রীর কারও সোনার বাংলা গড়ার প্রয়োজন নাই। অনেক খেলা দেখেছি তাদের এই পালা বদলে।