ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

আজ জাতীয় বাংলা ব্লগ দিবস। তৃতীয়বারের মতো দেশে দিবসটি উৎযাপন করা হচ্ছে। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয়, ‘গণজাগরণে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও সাইবার আইন’। ব্লগিং এর শক্তি ও সম্ভাবনাকে আরো নিবিড়ভাবে বিস্তৃতির জন্য বিগত দুই বছর ধরে বাংলা ব্লগ দিবস পালিত হয়ে আসছে।

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর বাংলা ব্লগিং-এর জন্য ঐতিহাসিক গুরুত্ব বহন করে। ২০০৫ সালের এ মাসে বাংলা কমিউনিটি ব্লগিং-এর যাত্রা সূচিত হয়। সে অবদান ও ঐতিহাসিক প্রেক্ষিতকে সামনে রেখে ২০০৯ সালের ১৯শে ডিসেম্বর প্রথমবারের মত পালিত হয় দিবসটি। বৈচিত্র্যময় ব্লগার ও ব্লগিং প্ল্যাটফর্মের পেছনের কারিগরদের মধ্যে সেতুবন্ধন এবং এর বাইরের বিশাল জনগোষ্ঠীর সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়ার জন্য দিবসটি ইতিমধ্যে ভূমিকা রাখতে শুরু করেছে। বাংলাদেশের সাইবার পরিসরে ব্লগের ভূমিকা অগ্রগণ্য। যুদ্ধাপরাধের তৎপরতা নিষিদ্ধসহ সকল বাক স্বাধীনতা নিশ্চিতকরণ ও গণজাগরণের পরিসর তৈরি এর মূল উদ্দেশ্য। সাইবার আইনের পরিকাঠামো তৈরীতে কমিউনিটি ব্লগ প্ল্যাটফর্মসমূহ ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার প্রত্যয়ে দিবস গুরুত্ব বহন করে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় আজ বিকেল ৫টায় পাবলিক লাইব্রেরীর সম্মেলন কক্ষে সামহোয়্যার-ইন ব্লগের উদ্যোগে মোট ১৩টি বাংলা ব্লগ প্ল্যাটফর্মের অংশগ্রহণে ৩য় বাংলা ব্লগ দিবস উদযাপনের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ডঃ আনিসুজ্জামান, প্রধান মন্ত্রীর একান্ত সচিব-১ এবং এটুআই প্রোগ্রামের জাতীয় প্রকল্প পরিচালক মোঃ নজরুল ইসলাম খান, সামাজিক গণযোগাযোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক গোলাম রহমান, এক্সেস টু ইনফরমেশন প্রোগ্রাম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়-এর পলিসি উপদেষ্টা জনাব আনীর চৌধুরী, সামাজিক উদ্ভাবন কেন্দ্রের পরিচালক আসিফ সালেহ, প্রিয় ডট কম-এর প্রতিষ্ঠাতা ও সি.ই.ও. জাকারিয়া স্বপন প্রমুখ উপস্থিত থাকবেন।

অনষ্ঠানে বিভিন্ন কমিউনিটি প্ল্যাটফর্ম একটি নির্ধারিত সময় জুড়ে তাদের নিজ নিজ ব্লগের বৈশিষ্ট্য ও অর্জন উপস্থাপন করবে এবং ব্লগারদের উল্লেখযোগ্য অবদানের স্বীকৃতি দেবে। বাংলা কমিউনিটির সাথে যুক্ত ১ লাখ ৫০ হাজারেরও বেশি ব্লগার। আয়োজনটি সম্পূর্ণ উন্মুক্ত থাকবে।