ক্যাটেগরিঃ ফটো

১৯৭১ এর ৮ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের এই অঞ্চল মীরসরাই হানাদার মুক্ত ঘোষিত হয়। ইতিহাস বলে, একাত্তরের ঐ দিন সকালে ওয়ারলেস ষ্টেশন থেকে পাক বাহিনীর একটি জিপ দ্রুত গতিতে বেরিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে প্রচন্ড শব্দে ওয়ারলেস ষ্টেশনটি বিস্ফোরিত হয়। শত্রুর অবস্থান নিশ্চিত হয়ে তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্তে মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে খবর পৌঁছে। সকাল ১০টা, বিএলএফ গ্রুফের মুক্তিযোদ্ধা সহ প্রায় দুই’শ মুক্তিযোদ্ধা মীরসরাই সদরের পূর্ব দিক ছাড়া বাকি তিন দিক ঘিরে ফেলে। বেলা ১১টার দিকে মুক্তিযোদ্ধারা সংগঠিত হয়ে শত্রুদের বিরুদ্ধে একযোগে আক্রমণ শুরু করে।

গুলি বিনিময়ের এক পর্যায়ে পাক সেনাদের পক্ষ থেকে প্রতিরোধ বন্ধ হয়ে যায়। সতর্কতার সাথে শত্রুদের অবস্থানে পৌঁছায় মুক্তিযোদ্ধারা। পাক বাহিনী এর আগেই উক্ত স্থান ত্যাগ করেছে এমন নিশ্চিত হলে। মুক্তিযোদ্ধারা থানায় প্রবেশ করে পাক সেনাদের আটটি রাইফেল উদ্ধার করে।

পরবর্তিতে খবর আসে, পাক সেনারা চট্টগ্রামের দিকে পালিয়ে গেছে। চট্টগ্রামের কোনো কোনো অঞ্চল তখনো হানাদারদের দখলে ছিল। মীরসরাই শত্রুমুক্ত হয়েছে-এ খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে চারদিক থেকে জয় বাংলা শ্লোগানে মুখরিত মিছিল আসতে থাকে। মীরসরাই হাই স্কুল মাঠে জনতার ঢল নামে। মৌলভী শেখ আহম্মদ কবির কোরআন তেলাওয়াত করেন এবং জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধারা জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে এবং ঘোষণা করা হয় মীরসরাই ভূখন্ড পাক বাহিনীমুক্ত একটি স্বাধীন এলাকা।

মন্তব্য ২ পঠিত