ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

তারানা ম্যাডামকে নিয়ে আমার কখনো মাথা ব্যথা ছিলনা! তিনি পাবলিকের নিরাপত্তার লক্ষ্যে ফেসবুক বন্ধ করেছিলেন, পাশাপাশি অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমও( বর্তমানে সচল আছে)। তুলেছেন সিম নিবন্ধনের কথা। সেটিও পাবলিকের নিরাপত্তার লক্ষ্যে। সাধুবাদ জানানোর মতো পদক্ষেপ। বিশ্বের অনেক দেশে এ পদ্ধতি সচল রয়েছে। যদিও অনেক বছর আগে একবার সিম নিবন্ধন করেছিলাম। কিন্তু কেন জানি জানিনা, বাংলাদেশে তথ্য সংরক্ষিত থাকে না! যাক, দ্বিতীয় দফায় তার উদ্যোগকে স্বাগত জানাতেই হলো, জানালাম। যদিও আমার মতো কয়েক লাখ প্রবাসীর হাতে থাকা ব্যক্তিগত সিম কার্ডটি তার দেয়া নির্ধারিত সময় সীমার মধ্যে নিবন্ধন করা সম্ভব হবে না বলেই বন্ধ করে দেয়া হবে। প্রবাসীদের এতে মাথা ব্যথা নেই, দেশে বিশ-পঞ্চাশ টাকায় তো সিম কার্ড পাওয়া যায়।

আজ পত্রিকায় দেখলাম, ফেব্রুয়ারি থেকে গ্রাহকের হাতের মোবাইল ফোনটিও রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। বিশ্বের উন্নত একটি দেশে বসবাস করছি, কই তাদের এ পদ্ধতিটি চালু নেই। অথচ এ নিবন্ধন পদ্ধতিটি তারানা ম্যাডামের সিদ্ধান্ত।

বাহ, চমৎকার! আচ্ছা আপনি কি কোনো হিসাব করেছেন, দেশে কত কোটি মানুষের হাতে মোবাইল ফোন আছে ? ঠিক আছে, সেটি আপনার বাংলাদেশ তাতেও আমাদের মাথা ব্যথা নেই। কারণ, আপনারা মনে করেন যারা প্রবাসে থাকে, তাদের আবার বাংলাদেশ কিসের ? কিন্তু ম্যাডাম, আপনি কি খবর নিয়ে দেখেছেন, প্রতিদিন ফ্লাইটে বিদেশ থেকে কতগুলো মোবাইল ফোন বাংলাদেশে যাচ্ছে ? ধরে নিন, একজন প্রবাসী দৈনিক চারটি করি মোবাইল ফোন নিয়ে যাচ্ছে, এক ফ্লাইটে গড়ে তিন থেকে চারশ জন। আর দৈনিক বিভিন্ন দেশ থেকে কতগুলো ফ্লাইট বাংলাদেশে অবতরণ করছে, সে হিসাব নিশ্চয়ই আপনার কাছে থাকার কথা। সিম কার্ড দ্বারা আপনি ব্যবহারকারীর অবস্থান নির্ধারণ করতে পারেন, অযথা মোবাইল ফোন নিবন্ধনের কাজ কি ? দেশে কি পাবলিক সেবার অন্য কোনো কাজ নেই ?

প্রিয় তারানা ম্যাডাম, আচ্ছা একটি কথা মন খুলে বলুন তো- পাবলিক সার্ভিস দিতে এসে, পাবলিক হয়রানি কোন নিয়মের মধ্যে পড়ে ? একটা পরামর্শ দেই- এসব যেনতেন সিদ্ধান্ত আর কাজ না করে, একেবারেই জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা জন্মনিবন্ধন কার্ডটি ডিজিটাল করুন। যাতে একজন নাগরিকের সব ধরনের তথ্য থাকবে। এ যেমন ধরুন, কালা মিয়ার বাবার নাম হাসেম মিয়া, হাসেম মিয়ার বাবার নাম জব্বর মিয়া, জব্বর মিয়ার বাবার নাম কুদ্দুস মিয়া। কালা মিয়ারা চার ভাই, পাঁচ বোন। মায়ের নাম বিবি কুলসুম। বাড়ি, ঘর, থানা, জেলা সেসবও। সাথে তার মোবাইল সিম নম্বর এবং সঙ্গে নিবন্ধন নম্বর ও আঙ্গুলের ছাপ। বিশ্বের যেকোনো দেশে বসে কার্ড নম্বর ছাপ দিয়ে পাওয়া যাবে সকল তথ্য। তাতে হয়তো কিছুটা লাভবান হবেন। ধন্যবাদ।