ক্যাটেগরিঃ আন্তর্জাতিক

চায়না রাষ্ট্রপ্রধানের শুভাগমনে আমাদের ভিতর বাহিরে এক সঞ্জিবনী অবস্থা।প্রত্যাশাও আকাশচুম্বী।
সবকিছু মিলিয়ে আমার একটা ধারনা হচ্ছে সবকিছুই ধোয়াশা,ফরমালিটি।জাতিগত বা দেশগত কায়েমী স্বার্থের সফর মাত্র।যদিও এ তাৎপর্য অন্যদের চাইতে ব্যতিক্রম চিন্তার জন্ম দিবে।তবুও আশায় বাধিব ঘর হতে চাই আপন আপন আত্মার পরমাত্মি।সম্পর্ক সুসংহত হোক সকল দাবী না হয় কিছুদাবী আলোর মুখ দেখুক।এমনটাই প্রত্যাশা।।

দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক ও রাজনৈতিক সম্পর্ক উন্নয়নে দুই দিনের সফরে আজ বাংলাদেশে আসছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। এ সফরকে ঘিরে চীনের নতুন দুটি উদ্যোগ ‘ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড’ এবং এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের মাধ্যমে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে ঋণ সহায়তার প্রতিশ্রুতির পাশাপাশি ২৫টি প্রকল্পের চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার কথা। বিশ্লেষকদের দৃষ্টিতে চীনা প্রেসিডেন্টের এই সফর বহন করছে বহুমাত্রিক তাৎপর্য।

বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনৈতিক শক্তির দেশ চীন। চীনের অর্থনৈতিক শক্তিকে আরো সুসংহত করতে দক্ষিণ এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য, আফ্রিকা ও ইউরোপের সাথে কানেক্টিভিটি জোরদারের উদ্যোগ নিয়েছে দেশটি। উদ্যোগটি এরই মধ্যে ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড নামে পরিচিতি পেয়েছে বিশ্বব্যাপী। এই উদ্যোগের মাধ্যমে প্রাথমিকভাবে বিভিন্ন দেশের মধ্যে আন্তযোগাযোগ বৃদ্ধিতে অবকাঠামো নির্মাণে সহযোগিতা করে আসছে দেশটি। আর এরই অংশ হিসেবে প্রায় তিন দশক পর প্রথম চীনা কোনো প্রেসিডেন্টের এই সফর, ভৌগোলিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে থাকা বাংলাদেশের জন্য বহন করছে বিশেষ তাৎপর্য।

চীনাদের বেশী খুশি করতে গিয়ে নিজস্ব সকীয়তায় যে চির না ধরে সে দিকটা বেশী লক্ষনীয়।কারো সাথে বৈরিতা নয় সকলের সাথে বন্ধুত্ব হওয়া চাই বর্তমান সরকারের প্রতিপাদ্য বিষয়।

চীনে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত আশফাকুর রহমান বলেন, “৬০টা দেশ ‘ওয়ান রোড ওয়ান বেল্টে’র মধ্যে অংশগ্রহণ করবে। আমরা একজন। চীনের সঙ্গে তো আমাদের অনেক পুরোনো সম্পর্ক। এটা তো আজকের না। আপনি জেনে অবাক হবেন এই সম্পর্ক দুই হাজার বছর আগের। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এত কাটাকাটি মারামারি পলিটিকসে, কিন্তু বিএনপি ইজ ওয়েলকামিং হিজ ভিজিট, আওয়ামীলীগ ইজ অলসো ওয়েলকামিং হিজ ভিজিট। সো এটা একটা ঐকমত্য আসছে।”

এ লেখার বেশীর ভাগ তথ্যসুত্র এনটিবি অনলাইন কর্তৃক পরিমার্জিত সংস্করন।আশা করি কিছুক্ষনের মধ্যেই মহা চীনের মহা নায়ক পা রাখবেন চিরসবুজের দেশ বাংলাদেশে।তার পদধূলিতে সিক্ত হোক আমাদের স্বপ্ন সারথী।

slide