ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

ত্বত্ত্বাবধায়ক সরকারের আবিষ্কারক অথবা জনক যদি বলি কে…?

সবাই এক কথায় উত্তরে বলবেন এই আওয়ামীলীগ। তাদের দীর্ঘ আন্দোলনের ফসল এই তত্ত্বাবধায়ক সরকার। এই তথ্যবধায়ক সরকারের দাবীতে তারা ঐ সময় ১৯০ দিন টানা হরতাল করেছিল ঐ তৎকালীন পরম বন্ধু গোলাম আযম নিজামি মুজাহিদের সাথে নিয়ে। আজ সময়ের পরিবর্তনে যারা যুদ্ধ অপরাধের দায়ে অভিযুক্ত ও অন্ধকার কারাগার ই এখন তাদের বাসস্থান। ঐ সময়ের চরম সুমিষ্ট এই তথ্যবধায়ক সরকার আজ কেন ধানব সরকার হয়ে গেলো…?

আদালতের পূর্ণাজ্ঞ রায় আসার পূর্বেই তাড়াহুড়া করে ত্বত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিল করা হল কারো কোন মতামত ছাড়াই। বিশেষকরে সুশীল সমাজের মতামত নেয়ার কোন গুরুত্ব মনে করল না। ইবেন ১৫ সদস্যর সংসদীয় কমিটির মতামতেও ছিল ত্বত্ত্বাবধায়ক সরকার থাকবে এবং সুশীল সমাজের বাক্তিগন ও এর পক্ষে, কিন্তু আমরা দেখলাম পরবর্তীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর একক সিদ্ধান্তে এটি কে বাতিল করা হল এবং দোহাই দিয়ে। দুর্ভাগ্য বসত সেই রায়ের কপি এখন বের নি। তবে আমরা যত দূর জানি ঐ রায় টি ছিল এই রকম ত্বত্ত্বাবধায়ক সরকার অবৈধ কিন্তু আর দুটি নির্বাচন এর অধিনে করা যেতে পারে। তারা তাদের সুবিধা মত পছন্দের টুকু গ্রহন করলেন আর বাকি টা বাদ দিয়ে দিলেন নিজেদের একক ইচ্ছায়। বিএনপি সহ ১৮ দল বলছে যেই কোন ত্যাগের মাধ্যমে এই তথ্যবধায়ক সরকার পুনরায় ফিরে আনা হবে। অন্য দিকে সরকারী দল বলছে আদালতের রায়ে এবং সংবিধান সংসদনের ফলে এটি বাতিল করা হয়েছে। এ থেকে ফেরার কোন সুযোগ নেই। এই দুই মুখী অবস্থানের ফলে সৃষ্টি হয়েছে চরম এক জটিলতা। এই সৃষ্ট জটিলতা থেকে দেশের মানুষ মুক্তি চায়।

অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের রূপরেখা
আমি মনে করি ত্বত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে এই প্রধান জটিল সমস্যা সমাধানের এক মাত্র উপায় হল অন্তর্বর্তী কালীন নিরাপক্ষ সরকার। যেহেতু দুই জোটের কারো উপর কারো কোন আস্তা ও বিশ্বাস নেই সেহেতু একক দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হতে পারে না। তাই আমি মনে করি অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ই প্রকৃত সমাধান ও এর রূপরেখা হতে পারে যেমন এখানে দুই জোটের ই সমান পার্টিসিপেশন থাকবে যেমন ১৮ দল থেকে ৫ জন ১৪ দল থেকে ৫ জন করে নিয়ে এবং দুই জোটের মতামতের ভিত্তিতে এক জনকে প্রধান করে অন্তর্বর্তী কালীন সরকার গঠন করা যেতে পারে। এবং গুরুত্বপূর্ণ পদ গুলি আলোচনার মাধ্যমে সমহারে ভাগ করে নিয়ে পরিচালনা করবে। ফলে কেউ এখানে একক আধিপত্য বিস্তার করতে পারবে না। আমরা আশা করি সম ক্ষমতার মাধ্যমে সুন্দর একটি নির্বাচন উপহার দিতে পারবে এই জাতিকে।

অবশেষে আমি মনে করি সংসদে যদি এই ফরমেটে যেমন ৫+৫=১০ , ১। অন্তর্বর্তী কালীন সরকারের একটি বিল সংসদে উত্থাপন করে তা পাশ করা হয় বর্তমান সরকারের পক্ষ থেকে। সেখানে কারো কোন আপতি থাকার কথা নয়। যদি কেউ আপতি করে টা হবে জন বিরোধী। আমরা সাধারণ জনগন তাকে সাপোর্ট করব না।