ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

চট্টগ্রামে ৫ ঘন্টার ব্যবধানে ২ টি সড়ক দূর্ঘটনায় মা-মেয়ে নিহত এবং ২১ জন আহত হয়েছেন।

হাটহাজারী উপজেলায় হাটহাজারী-ভাটিয়ারি সংযোগ সড়কে দুটি সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে মা ও মেয়ে নিহত এবং অন্য মেয়ে গুরুতর আহত হয়েছে। অন্যদিকে সীতাকুণ্ডে বাস খাদে পরে আহত হয়েছে ২০ বাস যাত্রী। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সীতাকুন্ড রয়েল সিমেন্ট ফ্যাক্টরির সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সোমবার দুপুর ১টায় হাটহাজারী-ভাটিয়ারি সংযোগ সড়কের জাহাঙ্গীর লেনে এ দূর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন মা লক্ষ্মী রানী (৩৫) ও মেয়ে স্নিগ্ধা রানী (১১)। এছাড়া আহত হয়েছে লক্ষ্মী রানীর ছোট মেয়ে কলি (৮)। তাকে গুরতর আহত অবস্থায় চট্টগ্রাম সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাটহাজারী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার জানান, দুপুরে দুই মেয়েকে নিয়ে ফটিকছড়িতে তাদের ফুপুর বাড়ির উদ্দেশে নগরীর কাট্রলী থেকে সিএনজি অটোরিকশায় উঠেছিলেন স্নিগ্ধা রানী। কিন্তু পথেই নির্মম দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান মা ও মেয়ে। নিহত সিগ্ধা রানী একটি সুতার তৈরি কারখানায় চাকুরি করতেন বলে তিনি জানান। এদিকে, দুর্ঘটনার পর সিএনজি অটোরিকশা রেখে পালিয়ে যায় দুই চালক। দুর্ঘটনাকবলিত সিএনজি টেক্সি দুটির নাম্বার চট্টমেট্রো থ ১১-২০৭৩ এবং চট্টমেট্রো থ ১১-৩০৩১।

সীতাকুন্ড পুলিশ ও বারো আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়, অপর একটি গাড়িকে ওভারটেক করতে গিয়ে চালক বাসটির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। এ সময় বাসটি বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে খাদে পড়ে যায়। পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহতদের উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করে।

চমেক হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ৭ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এরা হলেন, বাবু মিঞা (২৬), মোহাম্মদ আশরাফ (৫০), মোহাম্মদ এনামুল হক (৩২), আবু বকর সিদ্দিক (৪০), মোহাম্মদ আনোয়ার ইসলাম (২৫), মোহাম্মদ মুকিতুল ( ২৫) ও তুহিন (২০)। অন্যদের স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

***
রিপোর্ট: এম. নাজমুল ইসলাম, চট্টগ্রাম, ১৫ আগষ্ট ১১
০১৬৭৩২৭০৯১৯