ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

আমাদের নবীকে হেয় করে প্রচারিত একটি ভিডিও ক্লিপ এর জন্যে গতকাল (মঙ্গলবার) সন্ধা থেকে বাংলাদেশ সরকার ইউটিউব বন্ধ করে দিয়েছে । সাহারা খাতুন টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে আসবার পর এটিই ছিল উনার প্রথম কাজ এবং দাপটের সাথে সেটি তিনি করে দেখালেন।

এর আগে ফেসবুক নিয়ে এমন ঘটনা ঘটিয়েছিল আমাদের ডিজিটাল কান্ডারীগণ। আসলে তারা একটা উছিলা খুজে নেয় নিজেরা পাদপ্রদীপে আসবার জন্যে। চিনতা করে দেখুন এখন গুগল কেও যদি বন্ধ করে দেয়া হয় তাহলে আমাদের অবস্থা কি হবে? প্রকৃত পক্ষে আমাদের আরো সচেতন হতে হবে এই ধরেন প্রচারণার বিরুদ্বে, এটা কেবল শুরু বলতে পারেন। এখন থেকে নিয়মিতই বিভিন্ন জনপ্রিয় সাইটে এই ধরনের ন্যাক্কারজনক ভিডিও ক্লিপ বা পোস্ট পাবেন তাই বলে কি আমরা এই সকল সাইট বন্ধ করে দিয়ে উট পাখির মত বালিতে মাথা গুজে পড়ে থাকবো? বরং আমাদের উচিত এই সাইটগুলিতেই নিয়মতান্ত্রিক, শান্তিপূর্ণ ও বুদ্ধিদীপ্তভাবে পাল্টা যুক্তির মাধ্যমে প্রতিবাদ উপস্থাপন করা।

বলা হয়ে থাকে এই যুগে শিক্ষিত তারাই যাদের ইন্টারনেট ব্যবহারের যোগ্যতা আছে। সুতরাং আমাদের টেলিযোগাযোগ এর মত গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বও কোনও শিক্ষিত জনের হাতেই দেয়া হউক, যিনি আমাদের ডিজিটাল বাংলা গড়তে সাহায্য করতে পারেন। সাহারা খাতুনকে অন্য কোনও জায়গায় সরানো হউক, নচেত ভবিষ্যতে ডিজিটাল বাংলার চেহারা কেমন হবে তা বর্তমান ডিজিটাল মন্ত্রী সাহারা খাতুনের মুখের দিকে তাকিয়ে বুঝে নিন।