ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সদস্য ও দৈনিক জনকন্ঠের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি আহম্মেদ রিয়াদকে মারধর করেছে ছাত্রলীগের কর্মীরা। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেইরি গেট এলাকায় তাকে মারধর করা হয়।

জানা গেছে, গতকাল বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে ক্রিকেট খেলার সময় ক্রিকেট বল চলে যাওয়াকে কেন্দ্র করে রিয়াদের সঙ্গে ছাত্রলীগ কর্মী পারভেজ আহম্মেদ, মো. সোহেল হোসেন ও সবুজের বাকবিতন্ডার ঘটনা ঘটে। এসময় তাদের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। এক পর্যায়ে ছাত্রলীগ কর্মীরা ক্রিকেট স্ট্যাম্প নিয়ে ধাওয়া করলে রিয়াদ দৌড়ে মাঠ সংলগ্ন জাহাঙ্গীরনগর সুপার মার্কেটের একটি খাবার দোকানে আশ্রয় নেন। ছাত্রলীগ কর্মীরা দোকানের ভিতের গিয়ে তাকে স্ট্যাম্প দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা রিয়াদকে উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে নিয়ে যান। রিয়াদের আঘাত গূরুতর হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর তাকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার মো: জিসান হোসেন বলেন, রিয়াদের শরীরে বেশ কয়েকটি জখমের দাগ রয়েছে। তবে তিনি এখন শঙ্কামুক্ত বলে জানান তিনি। এদিকে ঘটনার সুষ্ঠতদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম, সাংবাদিক সমিতি, ছাত্র ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সিনিয়র কর্মী আশরাফুজ্জামান লিটন বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নয়। তিনি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক আরজু মিয়া লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

আসলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায়ই সাংবাদিক নির্যাতনের মতো ঘটনা ঘটে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিচার প্রহসন মনে হয়। উপযুক্ত বিচার না করাই এ ঘটনার পুনরাবৃত্তির কারণ বলে মন্তব্য সচেতন মহলের।