ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

 

জীবনটা কত বড় বা কত ছোট তা ব্যক্তি বিশেষ নির্ভর করে বলে আমার মনে হয়। মাঝে মাঝে এই সূক্ষ্ম,সুন্দর জীবনটা অনেক বড় ও কঠিন মনে হয়। জীবনের হিসাবে মেলে না এমন কোন ঘটনার পরিপেক্ষিতে গেলে মনে হয় আসলেই জীবনের পরিধি অনেক বড় এবং কঠিন।

বিধাতা জানেন জীবনের পরিধি কত বিস্তৃত। বিধাতার বিশ্বাসে এ জীবন অতি সূক্ষ্ম। কিন্তু কিছু কিছু ঘটনা যখন আপন মনকে ভাবিয়ে তোলে তখন আর সে জীবনের কোন হিসাব মিলানোয় দায় হয়ে যায়।
ছোট বেলা থেকে যে পৃথিবী দেখেছি,যে সুন্দরের ভূবনে বসবাস করেছি তা আর পায় নি খুজে যত বড় হচ্ছি ততোই যেন সেই সব ধারনা যাচ্ছে পালটিয়ে। ছোট বেলায় যে নয়নে বাবা,মা,ভাই,বোন,আত্মীয় স্বজন,প্রতিবেশি কে দেখেছি,বয়সের বাড়নে তা যেন অনেকটা মিথ্যা হয়ে যাচ্ছে আমাদের বয়সের ধাচে।

বড় হতে হতে আর সামাল দিতে পারছি না পরিবার,বাবা,মা,ভাই,বোন,আত্মীয় স্বজন,প্রতিবেশিদের সাথে সে নিবিড় সম্পর্কে বেধে। সব যেন হারিয়ে যাচ্ছে,পালটিয়ে যাচ্ছে ব্যক্তিগত স্বার্থের অজুহাতে। বড় হয়ে দেখেছি ছেলে বাবা-মার সাথে খারাপ আচারন করছে।ছেলে খারাপ সঙ্গ দিচ্ছে,ছেলে ভাই-বোন,আত্মীয় স্বজন,প্রতিবেশিদের থেকে হারিয়ে যাচ্ছে মায়ার বাধন থেকে।

বড় হয়ে দেখেছি মেয়ে অন্য জালে মায়ার ছায়া শীকড়কে ছেড়ে। বড় হয়ে দেখেছি মেয়ে স্বাধীনতার নামে খারাপ সঙ্গে লুকোচুরি বাধে।বড় হয়ে দেখেছি মেয়ে ভালবাসার নামে অবৈধ সম্পর্কের জালে।
বড় হয়ে দেখেছি আত্মীয় স্বজন ও কত দূরে দূরে প্রয়োজন শুধু নিজের তরে।বড় হয়ে দেখেছি সম্পদ নামের অট্টালিকাতে আত্মীয়দের মাঝে বাধে কলঙ্কিনি।বড় হয়ে দেখেছি যে সম্পর্ক ছিল মধুর হয়ে তা আজ চোখা-চোখিও না মেলে।

বড় হয়ে দেখেছি প্রতিবেশি সাহায্যের ভানে ঠকিয়ে চলে একে অন্যকে।বড় হয়ে দেখেছি প্রতিবেশি নানা দলে ঘোরে।বড় হয়ে দেখেছি প্রতিবেশি শত্রু আগে হতে জানে।

বড় হয়ে দেখেছি ভাই ভাইকে মারে।কিন্তু ছোট বেলার মত আর আদর না করে। বড় হয়ে দেখেছি ভাই ভাইকে জীবন নিয়ে টানে।বড় হয়ে দেখেছি ছেলে বাবা-মাকে খুন করে।বড় হয়ে দেখেছি ছেলে বাবা,মাকে দোরে ঝুলিয়ে তালা দিয়ে সুখমঞ্চ খোঁজে।বড় হয়ে দেখেছি বাবা মা কে বৃদ্ধাশ্রমে থাকতে।বড় হয়ে দেখেছি ছেলে বউ এর ঘর নিয়ে মাতে। বড় হয়ে দেখেছি ছেলে মাতলামি করে।বড় হয়ে দেখেছি ছেলে সন্ত্রাসীও করে।

আমাদের বড় হওয়াতে পৃথিবীর সকল পূর্ব ধারনা গুলো মিথ্যাচারে পরিনত হয়।আজ শুনছি বাবা ছেলেকে,ছেলে বাবা-কে,ছেলে বউকে,বউ স্বামীকে,আত্মীয় আত্মীয়কে কত সব অকল্পনীয় সংঘাতে যা কি না কেড়ে নেয় এই পৃথিবীর রূপ আর দেখতে না দেয়।খুবই সামান্য কোন কারনের ফলে আমরা ঘটিয়ে ফেলেছি কতকগুলো জীবনের পরিসমাপ্তিতে।যা হয়তো কোন দিন কেউ কখনও কল্পনাও করতে পারে নি।ক্ষমা কর প্রভু,বিবেক দাও মোদের,শুদ্ধ আত্মা দাও,আমরা যে বাঁচতে চায়।এই আকুতি আমাদের সাধনায়