ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

বাংলাদেশের ইতিহাসে কালো দিন যাচ্ছে,রক্তে অর্জিত লাল সবুজের পতাকা ছিরে পেলা হচ্ছে, শহীদমিনার ভাংচুর হচ্ছে, পাকিস্তান জিন্দাবাদ বলে স্লোগান দিচ্চে, রাষ্টিয় সম্পদ পুরিয়ে দিচ্চে, রেল লাইন তুলে দেওয়া হচ্ছে, শুধু মাত্র বাংলাদেশে চাঁদে মানুষের ছবি দেখা যায়,একজন এম পির মুখে মুক্তিযুদ্ধে ৩ লক্ষ মানুষ শহীদ হইছে এই কথা শুনা যায়, বাধা দিলে গৃহযুদ্ধ বাধবে এই হুমকি শুনা যায়, জেলের তালা ভাঙবো আমাদের নেতাদের কে আনবো, এই দেশের জামাত চারা সব নাস্তিক,মালাউন,মুরতাদ এটা ও শুনা যায়,রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে হামলা হচ্ছে,সাধারন মানুষের মনে ধর্মের কথা বলে বিব্রান্তি চরাচ্ছে(৭১ এর মত), লাগাতার হরতালের দাক দিচ্চে জনগন প্রত্যাখ্যান করছে আবার হরতাল ডাকচে আবারও প্রত্যাখ্যান করছে , কারা হরতাল ডাকে? কি জন্য ডাকে এই হরতাল? কার জন্য ডাকে হরতাল ? কোন দেশে ডাকে হরতাল? এই দেশ কার? এই দেশে কি পাকিস্তানি পতাকা উরবে নাকি বাংলাদেশের? কারা এই দেশেকে নিয়ে চিনিবিনি খেলছে? কারা খেলাচ্ছে? যারা দেশের সঙ্খালুগু মানুষের বাড়ি ঘরে আগুন লাগায় নির্যাতন করে দেশ থেকে চলে যাওয়ার হুমকি দেয় এরা কি মানুষ হতে পারে? যে মানুষটির মৃত্যু দণ্ড দিয়েছে তার এখনও একটি পশম ও নরেনি কিন্তু তার জন্য প্রায় ১০০ জনের প্রান হারাতে হল মানুষের জীবন কি এতই মূল্যহীন ? আমার কাছে না, যারা জীবন বাজি রেখে মাঠে নামে তাদের ভিতর বিষ ঢুকিয়ে দিয়েছে এই বিষ তাদের মৃত্যুর আগ পর্যন্ত শেষ হবে না, তাই তাদের জীবন এখন অন্য কারো জন্য নিজের নয়। যারা জীবন দিয়ে জীবন বাচাতে চাচ্ছে তারা কি ঐ মানুষের ৪১ বছর আগের চরিত্র, বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে ধারনা আছে ? হরতাল একটি সাংবিধানিক অধিকার তাই গণতান্ত্রিক দাবীর জন্যই একমাত্র হরতাল ডাকতে পারে , কিন্তু এখন যে হরতাল চলছে তা কতটুকু গণতান্ত্রিক তার কোন নৈতিক ভিত্তি আছে, চলমান সংকটময় পরিস্থিতিতে সবার সচেতন হয়ে এদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে নইলে এই দেশ কে তারা আপগানিস্তান, পাকিস্তান বানাবে। আমরা কি তা হতে দিতে পারি?