ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

আমি কি মিথ্যা বলছি ঢাকায় তামিল ছবির সুটিং হয়নি! কেন গত কাল টিভিতে দেখলাম চাপাতি দিয়ে বিশ্বজিৎ কে কোপাচ্ছে ভিলেনরা । আচ্ছা নায়ক কি বিশ্বজিৎ ছিল! নায়িকা কে ছিল! আচ্ছা নায়ক তো মরে না বিশ্বজিৎ কেন মরল, হয়তো পরিচালক নায়কের নায়িকা দেইনি তাই । আচ্ছা পরিচালক কে ছিল? কে আবার আওয়ামীলীগ বিএনপি। ও সরি এটা তামিল ছবি না, বাস্তব! এটা তো বাংলাদেশ ! তাই তো বলি নায়ক কেন মরলো , সরি দশর্ক ! আমি একটি টেলিভিশনে মেক করি তাই সব সময় মনে হয় ছবির মধেই আছি।

আসলে ওরা ডিজিটাল এখন আর ওয়া লগিবৈঠা দিয়ে পিটিয়ে মানুষ মারতে ভাললাগে না তাইতো ওরা এখন চাপাতি দিয়ে দিন দুপুরে কোপিয়ে মানুষ মারে তবে ওয়া স্বাধীনতার পক্ষে! তাই ওদের মানুষ মারা চলে!

আর আমাদের পুলিশ সেই তো বলে তদন্ত করে দেখতে হবে আগে, তার পর বলা যাবে কে মেরেছে কাকে মেরেছে কখন মেরেছে অথচ বাংলাদেশে মিডিয়াগুলো হত্যাকারীদের ছবি ছাপিয়ে বলছে এরা কারা! আমরাও চিনি কিন্ত বলবো না কারণ বুকে ভয় করে! ওয়া যে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি!

আজ মামলা হলো বিএনপি মহাসচিব এর নামে কারন তিনি গাড়ী পুড়িয়েছেন বা গাড়ী ভাঙতে হুকুম দিয়েছে তবে টা ভাল কিন্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যে হুকুম দিয়েছিলেন তার প্রতিফলন কি বিশ্বজিৎ এর রক্ত নয় , তাহলে কে করবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নামে মামলা আমি করবো কিন্ত দশর্ক আমার যে ভয় করে! কারন ওয়া যে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি! ওদের মানুষ মারা চলে! কিছু হয় না এটাও কিছু হবে না।

হে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধারা তোমরা দেখ আজ বাংলাদেশে রক্ত দিয়ে হোলি খেলা হচ্ছে, আর এজন্য কি তোমরা স্বাধীন করেছিল তাহলে তোমরা ভুল করেছে আমার ও ভুল হয়েছে এদেশে জন্ম গ্রহন করে, আমরা মুক্তি চাই কালকে তামিল ছবির সুটিং দেখে খুবই ভয় পেয়েছি ঘুমাতে পারিনি, মানুষ হয়ে একজন মানুষকে এভাবে মারে দেশ কি জাহিলিয়াতের যুগ থেকে খারাপ হতে যাচ্ছে! ওদের বিবেক একটু কাঁদলো না পা ধরে মাফ চেয়েও ক্ষমা পায়নি বিশ্বজিৎ অথচ সেই ছিল নিরপরাধ মানুষ! সতি কথা কি বিশ্বজিৎ ছিল হিন্দু আর স্বাভাবিক ভাবে এদেশে হিন্দুরা নৌকায় ভোট দেয় সেই নৌকার লোকেরাও মেরে ফেলল বিশ্বজিৎ। তবে চুপ বলা যাবে না আমার ভয় হয় কারণ ওয়া মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি ! মুখে বলে! বাস্তব ঢাকায় তামিল ছবির সুটিং!