ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

 

The Most Mysterious Story of Earth (পৃথিবী ও আমরা: Trailer)
শরীরে ভাইরাস আক্রান্ত হলে তাপমাত্রা বাড়ে, মানে জ্বর আসে। এই জ্বর কিন্তু কোন রোগ নয়, দেহের ইমুন সিস্টেম জীবানু ধংস করতে গেলে এই উপসর্গ দেখা দেয়। ঠিক তেমনি গ্লোবাল ওয়ার্মিং মানে পৃথিবীর জ্বর আসছে, আর আমরা সেই জ্বরের কারণ।

আমাদের দেহ যদি জীবনুর সঙ্গে জয়ী না হয়, তাহলে দেহ মারা যাবে। এখানে হয় দেহ জিতবে নয়তো জীবানু। পৃথিবীর তাপমাত্রা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে, কিছুদিন আগেও বন্যা হলো আমাদের দেশে, কারণ দিন দিন পৃথিবী তার ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছে।

যা বলতে চাচ্ছিলাম তা হলো পৃথিবী বনাম আমরা, পৃথিবীর কাছে আমরাও ভাইরাস হয়ে গেছি, দিন দিন তাপমাত্রা বৃদ্ধি করেই যাচ্ছি নানান উপায়ে। এক সময় পৃথিবী তার জ্বর কমানোর ঔষধ প্রয়োগ করতে পারে যদি তার জ্বর না কমে। তখন কী হবে একবার ভেবে দেখেছেন? হয় পৃথিবী মরবে আমরা জয়ী হতে চাইলে, নয়তো আমরাই দমে যাবো। মূল কথা হলো পৃথিবী যদি মারা যায় তাহলে আমাদের অস্তিত্ব থাকবে না। আর আমরা যদি বিলিন হয়ে যাই সেই ড্রাগন ডায়নাসরদের মতো তাহলে পৃথিবীর কিছু যায় আসে না। কারণ পৃথিবী তার উদ্দেশ্য সফল করে যাবে নতুন কোন প্রজাতির উদ্ভাবন করে।

আমরা হয়তো জানিনা পৃথিবীর উদ্দেশ্য কী? পৃথিবীও হয়তো জানে না আমাদের মতলব কি!