ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

আমি কিছু বিষয়ে সকল হ্যাকার ভাইদের এবং জনসাধারনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ইন্ডিয়ানরা অন্যদেশের সাইট হ্যাক করে আমাদের নাম দিয়ে দিচ্ছে। সামরিক পরিভাষায় এর নাম “ফলস ফ্লাগ” অপারেশন । ইন্ডিয়ান হ্যাকাররা এটা করছে, যাতে আমাদের বিরুদ্ধে অন্য দেশের হ্যাকারদের খেপিয়ে তোলা যায় । এটা বন্ধ করার সহজ উপায় হচ্ছে, সবগুলো বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপ মিলে একটা অথবা আলাদা আলাদা ভাবে ভিডিও এবং ডকুমেন্ট তৈরী করে এর মাধ্যমে বিশ্বের সকল হ্যাকার কম্যুনিটি অথবা গ্রুপ কে জানিয়ে দেয়া যে, আমাদের যুদ্ধ শুধু ভারতের সাথে, আমরা অন্য কোনো দেশের ওয়েবসাইট হ্যাক করছিনা।

দ্বিতীয়ত, ভারতীয় হ্যাকাররা বাংলাদেশের সাইট হ্যাক করে বাংলাদেশের হ্যাকার গ্রুপ গুলোর নাম দিয়ে দিচ্ছে। এটা হচ্ছে শয়তান ভারতীয় হ্যাকারদের আরেকটা শয়তানীর নিকৃষ্টতমরূপ। এটা করা হচ্ছে, বাংলাদেশে অবস্থানরত ভারতীয় দালালদের মুখ খোলার একটা কারণ তৈরী করে দেওয়ার জন্য। এই দালালগুলি তখন সরব হয়ে উঠবে এই বলে যে, সকল হ্যাকারদের আইনের আওতায় আনা হোক অথবা এই হ্যাকিং কর্মকান্ডকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হোক অথবা রাষ্ট্রীয় ভাবে এই হ্যাকারদের উদ্দেশ্যে সতর্কবাণী দেয়া হোক। এর মাধ্যমে তারা চাইবে, প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ করতে পারার আনন্দে উদ্বেলিত তরুণ প্রজন্মকে, বাংলাদেশের নির্যাতিত ও নিষ্পেষিত মানুষগুলোকে দমিয়ে দিতে।

এটার সমাধান হচ্ছে, সবগুলো বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপ মিলে একটা অথবা আলাদা আলাদা ভাবে ভিডিও এবং ডকুমেন্ট তৈরী করে এর মাধ্যমে সকল বাংলাদেশবাসীকে জানিয়ে দেয়া যে, আমরা বাংলাদেশী সাইটগুলোর রক্ষাকারী, আমরা কখনই আমাদের স্বদেশী সাইটগুলোকে হ্যাক করবনা। যদি কোনো সাইট এ আমাদের নাম লেখা থাকে, তাহলে বুঝতে হবে, এটা আমাদের সংগ্রামকে বন্ধ করে দেয়ার জন্য ভারতীয় হ্যাকারদের নিকৃষ্টতম চালাকি। যুদ্ধ কৌশলে এর নাম হচ্ছে “ফলস ফ্লাগ” অপারেশন।

ভিডিও অথবা ডকুমেন্ট তৈরী করে এই সতর্কতা টুকু ফেসবুক, ব্লগ ও অন্যান্য মিডিয়ার মাধ্যমে সর্বত্র ছড়িয়ে দিন।