ক্যাটেগরিঃ আন্তর্জাতিক

পঞ্চাশ বছর আগে বিশ্বের জনসংখ্যা ছিল ৩০০ কোটি । জাতিসংঘ ধারণা করছে বিশ্বের বর্তমান জনসংখ্যা ৭০০ কোটি । জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল বলেছে, জনসংখ্যা বৃদ্ধির এ ধারা অব্যাহত থাকলে ২১০০ সাল নাগাদ বিশ্বের জনসংখ্যা ১০০০ কোটিতে দাঁড়াবে । ১৮০৪ সালের দিকে বিশ্বের জনসংখ্যা ছিল একশ কোটি । পরবর্তীতে জনসংখ্যা দু‘শ কোটিতে পৌঁছাতে সময় লাগে একশ পঁচিশ বছর । এসময় জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার উর্ধ্বগামী হলেও তা আশঙ্কার পর্যায়ে ছিল না । এরপর থেকেই বেশি হারে বাড়তে থাকে জনসংখ্যা । ১৮০০ সালের পর বিগত দুই শতকে জনসংখ্যা সাত গুণ বেড়ে যায় ।

উন্নয়নশীল দেশগুলোতে বেশি হারে মানুষ বেড়েছে । ১৯৬০ সালে বিশ্বে যে জনসংখ্যা ছিল বর্তমান সংখ্যা তার দুগুণ ছাড়িয়ে গেছে । অসম জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণ হিসেবে জন্ম-মৃত্যু হারের তফাৎ এর কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মত, উন্নত চিকিৎসার কারণে মৃত্যুহার কমলেও উচ্চ জন্মহারের কারণে জনসংখ্যা বেড়ে চলেছে ।

জাতিসংঘের পূর্বাভাস, উন্নয়নশীল দেশে সর্বোচ্চ জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাবে । ২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্বের নতুন জনসংখ্যার ৯৭ শতাংশই হবে উন্নয়নশীল দেশে । তবে আশার কথা হচ্ছে, ঐ সময় বিশ্বে জনসংখ্যার ৮৬ শতাংশের জীবনমান উন্নত হবে বলে ধারণা করছে জাতিসংঘ ।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলন্বনে