ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

তাসকিন ইস্যুতে আমরা রিজার্ভ লোপাটের ঘটনাটি ভুলেই যাচ্ছি! এটা আমাদের জাতিগত দোষ। নতুন ঘটনা ওপরে এলে পুরনোটা তলিয়ে যায়! রিজার্ভ লোপাটের ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের যেসব ‘ইঁদুর’ জড়িত, তারা আজো আড়ালেই। কী আজব দেশ!
রিজার্ভের অর্থ ফেরত পাওয়ার আশা ছেড়েই দিয়েছি। এখন শুধু মুখোশধারী ইঁদুরগুলোকে দেখতে ইচ্ছে করছে; যারা আমার দেশের শ্রমিক-মজুর-প্রবাসীর রক্ত বেচা টাকা লুটেছে।
তাসকিন ইস্যু নিয়ে একটি অদ্ভুত কাণ্ড দেখছি- কয়েকটি অনলাইন শিরোনাম করেছে- তাসকিন আবার খেলবে! শিরোনাম পড়ে টাসকি খাওয়ার দশা! বিস্তারিত পড়তে গেলে সে রকম কিছুই নাই। যদিও হাজারো অনলাইন পোর্টালের ভিড়ে গুটিকয়েক এমন ফাজলামো করলে কিছু যায় আসে না। তবে এই বিষয়টা নিয়ে অনেকেই জানতে আগ্রহ দেখান। সর্বশেষ তথ্য হলো- তাসকিনের বোলিং অ্যাকশন অবৈধ ঘোষণার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আবেদন করেছে বিসিবি। জটিল প্রক্রিয়ায় না গিয়ে দ্রুত সাড়া পেতেও চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে এখনো আইসিসি কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি।
কোনো বোলারের অ্যাকশন অবৈধ হলে তাৎক্ষণিক পুনর্বিবেচনার নজির ইতিহাসে নেই। তবে বিসিবি সূত্র জানিয়েছে, তাসকিনের বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে। দ্রুতই তারা মতামত জানাবে।
12803077_467517236772145_7401979611681957928_n copy
আরেকটি কথা-
তাসকিন এবং সানির বোলিং অ্যাকশন অবৈধ ঘোষণার নেপথ্যে ভারতীয় কূট-কৌশলই সামনে চলে এসেছে। নানা কারণে এসব অভিযোগ মনগড়া ভেবে উড়িয়েও দিতে পারছি না। বিশেষ করে বাংলাদেশ ক্রিকেটের উঠতি সময়ে মোড়লদের নানা ষড়যন্ত্রের অদৃশ্য তৎপরতা এসব অভিযোগকে তুঙ্গে দেয়।
ক্ষোভ-বিক্ষোভ আমাদের সাধারণের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকছে। একজন ক্ষুব্ধ দর্শকের মতো বিসিবি আচরণ করতে পারে না। কারণ, নির্দিষ্ট আইনগত পথের মধ্যে থেকেই বিষয়গুলো মোকাবেলা করতে হয়। নইলে হিতে বিপরীত হওয়ার আশংকা থাকে। বিসিবি যেহেতু আইসিসির নীতিমালা মেনেই খেলছে, সেখানে করার কিছু নেই। যদিও হাটে-মাঠে-ঘাটে নানা বয়সী মানুষ বলছেন, ভারত-ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়াকে বাইরে রেখে বাকি দলগুলোই একটি শক্তিশালী কাউন্সিল গঠন করতে পারে।
আইডিয়াটি মন্দ নয়। কিন্তু এই দায়িত্ব কেউই নেবে না। বাইরের দলগুলোর কথা পরে আসুক। বিসিবি-ই তাতে সম্মত হবে কি না সংশয় আছে।
এসব দূর কল্পনা। এখন ভাবনা একটাই- মুখোশ খুলে যাক। দু’দিক থেকেই। একদিকে বোলিং অ্যাকশন অবৈধ ঘোষণার নেপথ্যের ষড়যন্ত্রকারী এবং অন্যদিকে রিজার্ভ লোপাটে সম্পৃক্ত বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তা- এই দু’দিকের চক্রান্তকারীদের মুখোশটা খুলে যাক। ওদের চেহারা দেখতে চাই। আর ঘৃণার থুথু ছিটাতে চাই ষড়যন্ত্রকারীদের কপালে।

লেখক : সাংবাদিক, news.joynal@gmail.com