ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

গত ১৮ই আগস্ট RAB এর হাতে ধরা পড়ে নিষিদ্ধ জঙ্গি দল হরকাতুল জিহাদ আল ইসলাম বাংলাদেশ বা হুজি-বি’র বর্তমান প্রধান মওলানা ইয়াহিয়া। গ্রেফতারের পর সাংবাদিকদের সামনে হাজির করা হয় এই জঙ্গি নেতাকে। কিন্তু, সেদিন সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে দেয়া হয়নি তাকে। কিন্তু, সেদিনই ইয়াহিয়ার ‘এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার’টি গ্রহণ করেন ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন এর সিনিয়র সাংবাদিক সুমি খান। ঢাকার বাঘা বাঘা ক্রাইম রিপোর্টারকে টপকে এই ‘এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার’ টি নিতে পারার জন্য সুমি খানকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। কিন্তু, এই সাক্ষাৎকারের জন্য অনেক ভোগান্তি পোহাতে হয় সাহসী এই সাংবাদিককে। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সেদিন সুমি খান জঙ্গি নেতা ইয়াহিয়ার সাক্ষাৎকারটি নেবার জন্য যখন র‌্যাব অফিসে যাচ্ছিলেন, তখন ঐ একই চ্যানেলের সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার পারভেজ রেজা মোবাইল টেলিফোনে র‌্যাব এর এক কর্মকর্তাকে সাক্ষাৎকারটি না দেবার জন্য বলেন। কারণ পারভেজ রেজা এর আগে বহুবার ফোন করেও সাক্ষাৎকারটি নিতে ব্যর্থ হন!

সূত্র জানায়, এক পর্যায়ে পারভেজ রেজা ‘ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনে সাক্ষাৎকারটি কিভাবে প্রচার হয় তা দেখে নেবো’ বলেও হুমকি দেন। সুমি খান এর সাফল্যের পথে বাধা দেয়ার ঘটনটি অশোভন বলে মনে করছেন সবাই। এ ঘটনায় অফিসে এসে অভিযোগ করেন সুমি খান। বিভাগীয় তদন্ত শেষে ৪ঠা সেপ্টেম্বর পারভেজ রেজাকে বরখাস্ত করা হয়। পারভেজ রেজা চ্যানেলটির নির্বাহী সম্পাদক নাজমুল আশরাফের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে জানা গেছে। নাজমুল আশরাফও চ্যানেল ওয়ান এর শীর্ষ পদে ছিলেন। গিয়াসউদ্দিন আল মামুনের উক্ত চ্যানেলটি থেকে রেজার ক্যারিয়ারও শুরু হয়। চ্যানেলটি বন্ধ হলে যোগ দেন এটিএন নিউজ এ। সেখান থেকে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনে যোগ দেন চলতি বছর।

ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন এর একাধিক সূত্র জানিয়েছে পটুয়াখালির ছেলে পারভেজ রেজাকে বরখাস্তের পর একই চ্যানেলের তার কয়েকজন ঘনিষ্ঠ সাংবাদিক বন্ধু (জান্নাতুল ফেরদৌসী, মাহবুব স্মারক, হিমেল) র‌্যাব এর কাছে যাওয়ার প্রস্তুতি নেন পারভেজ রেজার চাকরী ফিরে পাবার আশায়! এদের সবার সাংবাদিকতার ক্যারিয়ারের শুরু চ্যানেল ওয়ান থেকে।

কিন্তু, প্রশ্ন হলো চাকরী ফেরত পেতে RAB এর কাছে যাবার উদ্যোগ কেনো? আসলেই কী তা সত্যি? মিডিয়াতে সবার মুখে মুখে ফিরছে ঘটনাটি। যদি, পারভেজ রেজার চাকরি বাঁচাতে র‌্যাব এর দরজায় ধর্না দেবার প্রস্তুতি সত্যি হয়, তাহলে তা হবে সাংবাদিকদের জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক!