ক্যাটেগরিঃ সিটিজেন জার্নালিজম

 

ভার্চুয়াল প্লাটফর্ম আজ জ্ঞান-বিজ্ঞান,পারস্পরিক চিন্তা চেতনাকে অন্তর্জাতিকী করনের অন্যতম মাধ্যম নিঃসন্দেহে। আজ আমরা মাতৃভাষায় ব্লগিং করছি-এটা আমাদের জন্য নতুন এক জ্ঞানার্জনের জানালা। মাতৃভাষাকে যারা প্রকৃতই ভালোবাসেন, তারা সবাই অন্যান্য বাংলা ব্লগের মাধম্যে আমাদের পারস্পরিক সুস্থ চিন্তা চেতনাকে বিশ্বময় বাংলা ভাষাভাষীদের মধ্যে ছড়িয়ে দিয়ে মাতৃ ভাষাকে আরো বেশী সমৃদ্ধ, আরো বেশী মহিমান্বিত করতে চাই-তাদের সাথে আমি সবসময় আছি এবং থাকবো। সোস্যাল নেটওয়ার্কিং-এর এই প্রয়াসকে আমি অকুণ্ঠ সমর্থন জানিয়ে সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।

প্রকৃতপক্ষেই বাংলাদেশের যুবশক্তি আজ জিজ্ঞাসা-হীন, আকাঙ্ক্ষা-হীন, স্বপ্নহীন। কর্মশক্তি-হীন, দুর্নীতিবাজ, বিকৃত-মনা, মনুষ্যত্ব-হারা তারাই ভালো মানুষদের কাঁধে পা রেখে সকলের উপর কর্তৃত্ব করছে। সচেতনতা আজ বার্ধক্যের বোঝায় ন্যুব্জ, বার্ধক্যের চাপে তারুণ্য, যৌবন বিকৃত হয়ে গেছে। তাই কোনো যুবশক্তির প্রকৃত পরিচয় এখন বাংলাদেশে পাওয়া যাচ্ছে না। শিক্ষিত তরুন যুবকদের জন্য এটা লজ্জার, দুঃখের, অপমানের, ক্ষোভের ব্যাপার হওয়ার কথা। কিন্তু বাংলাদেশে তারুণ্য, যৌবন আজ বার্ধক্য বিকৃত, জরাগ্রস্ত, রুগ্ন, নির্জীব, চলচ্ছক্তিহীন। তাই তরুন-যুবক-যুবতীদের এ নিয়ে লজ্জার, দুঃখের, অপমানের, ক্ষোভের বোধ পর্যন্ত নেই।

দেশে যে শাসননীতি প্রচলিত আছে, তাতে সামাজিক ন্যায় বিচারের কোনো স্থান নেই। চিন্তাশক্তি ও শ্রমশক্তি এখানে দারুণভাবে বিড়ম্বিত। শোষণ-পীড়ন-প্রতারণা অবাধে চলছে। সুব্যবস্থার স্থলে কায়েম আছে সম্পূর্ণ অপব্যবস্থা। তুলনামূলকভাবে ধনী আরো ধনী হচ্ছে আর গরিব আরো গরিব হচ্ছে। ধনী গরিবের বৈষম্য দ্রুততর গতিতে বাড়ছে। দেশে সুস্থ তারুণ্য-যুবশক্তি নেই বলে এই অবস্থার পরিবর্তন ঘটানোর কোনো তাগিদ দেশে নেই। মাত্র ৪০ বছরেই বাংলাদেশ আজ বার্ধক্য বিকৃত-বাংলাদেশে কোথাও এখন শিক্ষিত তারুণ্য আর যৌবনের চিহ্ন নেই।

মাত্র কয়েক মাসের ব্যবধানে কয়েক ডজন বাংলা ব্লগ সৃস্টি হওয়ায় যতটা আনন্দিত, তার থেকে অনেক বেশী ভীত সন্ত্রস্ত! কারন, এখন ব্লগিং ব্যবহৃত হচ্ছে পারস্পরিক কাদা ছোড়াছুড়ির অস্ত্র হিসেবে, ভিন্নমতের ব্লগারদের “শিক্ষা” দিতে!আশা করি এই ব্লগে ভিন্নমতের ব্লগারদের অশ্লীল গালাগালির মাধ্যমে নয়, যা খুশী তাই “ট্যাগিং” করে নয়, যুক্তি ও প্রজ্ঞার মাধ্যমে পারস্পরিক মতের ভিন্নতার পক্ষে বিপক্ষে কথা বলে/লিখে নিজেদের চিন্তা চেতনাকে এগিয়ে নিতে সচেতন থাকবে। মাতৃভাষায় সৌজন্যতা, ভদ্রতা বজায় রেখে কি ভিন্নমতের, অন্যায়ের প্রতিবাদ করা সম্ভব নয়? তাছাড়া সমকালীনতা আর আধুনিকতা কী এক? উন্মাদনা আর উদ্দীপনা কী এক? আমরা অবশ্যই আধুনিক হবো, আন্তর্জাতিকও হবো। কিন্তু তা আমাদের নিজস্ব শিল্প-সংস্কৃতি, মূল্যবোধ ও ঐতিহ্যকে বাদ দিয়ে নয়। যে সংস্কৃতিতে রবীন্দ্রনাথ নেই, নজরুল নেই, লালন নেই, সুকান্ত নেই, জীবনানন্দ নেই, নেই জয়নুল সে সংস্কৃতি আমাদের সংস্কৃতি নয় হতে পারে না।
বিডিনিউজ২৪ ব্লগ বাংলাদেশের শিক্ষিত তারুণ্য, যুবশক্তি, যৌবনের শক্তি, দীপ্তি ও মহিমা নিয়ে এগিয়ে যাবে-এটাই আমার একান্ত কামনা। দুঃসময়ের পর সুসময় আসে- এটাই প্রকৃতির নিয়ম। সুসময় প্রতিষ্ঠার জন্যই সুস্থ, তারুণ্যের, সৃষ্টিশীল যৌবনের আত্মপ্রকাশ ঘটবে, বিডিনিউজ২৪ ব্লগের মাধ্যমেই বাঙালির তারুণ্য আর যৌবন মাথা তুলে দাঁড়াবে মা-মাটি-মানুষের মাতৃভাষা, স্বাধীনতা আর স্বার্বভৌমত্ব রক্ষাকর্তা হয়ে।

নিরন্তর শুভ কামনা।