ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

দুই শতাব্দীর দু’টি বিজ্ঞাপন। কোম্পানী একই। প্রথমটি গত শতাব্দীর ৮০’র দশকের। আরেকটি এই শতাব্দীর দ্বিতীয় দশকের। ব্যবধান অনেক। ৮০’র দশকে যখন মানুষ ধর্মের প্রতি আগ্রহী ছিলো, তখনো বিজ্ঞাপন দেয়া হতো সাহিত্য নির্ভর। আর আধুনিক এ যুগে বিজ্ঞাপন দেয়া হয় ধর্মকে ব্যবহার করে।

Maggi Add 89..priyodesh-Desh Kolkata

 

Maggi-Priyodesh
আমাদের ইসলামিক ফাউন্ডেশনের (ইফা) ‘মুফতি’রা কোনো পণ্যের হালাল হওয়ার ফতোয়া দেন ওই পণ্যের কারখানা পরিদর্শন না করেই, লেনদেনের বিনিময়ে! এ বছরের শুরুতে পত্রিকায় ‘হালাল সার্টিফিকেট’সহ ম্যাগি’র বিজ্ঞাপনটি দেখে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ওই মুফতিকে জিজ্ঞেস করেছিলাম, ম্যাগি নুডলস তৈরির উপাদান সমূহের নাম জানেন আপনি? উত্তর দিতে না পেরে এসি রুমে বসেও তিনি ঘেমেছিলেন প্রচণ্ড রাগে! হালাল পণ্যকে ‘হালাল, হারামের সার্টিফিকেট’ দেয়ার এখতিয়ার এই ফাউন্ডেশনের আছে কী না, এমন প্রশ্নের কারণে আমার ওপর ওই ‘মুফতি’র রাগ ফুলে-ফেঁপে ওঠেছিলো বহুগুণ!

‘ফেসবুকবিহীন’ অফুরন্ত সময়ের এই দিনে কলকাতা থেকে প্রকাশিত, পাঠকনন্দিত ‘সাপ্তাহিক দেশ’ পত্রিকার ৩ জুন ১৯৮৯ সংখ্যা ওল্টাতে গিয়ে এ বিজ্ঞাপনটি দেখে বারবার ইফা’র সেই ‘মুফতি’র রেগে লাল হওয়া মুখটি ভেসে ওঠছে চোখের সামনে। ম্যাগি’র দ্বিচারিতা, কয়েকদশকের মধ্যেই সাহিত্যনির্ভরতা থেকে ভণ্ডামিতে প্রবেশের দিকটাও উন্মোচিত! ধর্মকে ব্যবহার করে নিজেদের ব্যবসায়িক স্বার্থসিদ্ধি, ভণ্ডামি আর কতো? এর শেষ কোথায়?

আহসান কামরুল
২৭-১১-২০১৫ খ্রি.
ঢাকা।