ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

বঙ্গবন্ধুকে খুন করার পর আওয়ামী বিরোধীরা ২৮ বছর ক্ষমতায় ছিলো। খালেদা নিজে ছিলো ১০ বছর, তার দল ছিলো আরো ৭ বছর। এই দীর্ঘ সময়ে খালেদা বাংলাদেশ ও ভারতের মাঝে বিরাজমান ১টা সমস্যাও সমাধান করে নি। বরং খালেদা নিজেই বলেছে, ভারত গিয়ে ভারতের সাথে এগুলি নিয়ে কথা বলতে সে ভুলে যায়।

আবার যে আওয়ামীলীগ যুদ্ধের ৩ মাসের মধ্যে ভারতীয় সৈন্যদের ফেরত পাঠিয়েছিলো, গঙ্গা চুক্তি করে ভারত থেকে পানি এনেছে, তিস্তা চুক্তির জন্য চাপ দিয়ে যাচ্ছে, সীমান্ত চুক্তির বিল ভারতীয় সংসদে উঠিয়েছে, ভারতের ভিতর দিয়ে নেপালের সাথে করিডোর আদায় করেছে আর সাগরে অধিকার রক্ষা করেছে সেই আওয়ামীলীগকে ভারতের সাথে অমীমাংসিত সমস্যার জন্য দোষ দিতে চায় এই দুর্নীতিবাজ খালেদা। কতো আর হাসির পাত্র হবে এই নীতিভ্রষ্ট মহিলা? দেশের ভিতর ভারত বিরোধিতা করা আর ভারতে গিয়ে ভারতের গুন গাওয়া যার নীতি সেই খালেদার এই তেলেসামাতিতে মুগ্ধ আমরা।

ভারতে আশ্রয় নিয়ে পার্বত্য চট্রগ্রামের আদিবাসীরা পার্বত্য জেলাগুলিতে বছরের পর বছর ধরে যে সন্ত্রাস, রাহাজানি ও অরাজকতা কায়েম করেছিলো শেখ হাসিনা শান্তি চুক্তি করে তার সমাধান করেছেন, বাঙ্গালীদের খুন হওয়া থেকে বাঁচিয়েছেন।

এই সমস্যা সমাধানের জন্য খালেদা কখনো কিছু করে নি। আবার শান্তি চুক্তির পর খালেদা বলেছিলো, বাংলাদেশের ১/১০ অংশ ভারত হয়ে যাবে। হয়েছে?
এই হলো জামাতের বিএনপি শাখার আমীর খালেদা।