ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

Screenshot-2

সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী রিয়াজ রহমান রাতে তাঁর গাড়ীতে হামলা চালিয়েছে কিছু দুষ্কৃতিকারী এবং তাকে গুলি করা হয়েছে তাঁর পায়ে এবং কোমরে। তিনি মারাত্মক আহতাবস্থায় স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই কাপুরুষিত হামলার নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের নেই। যারাই এই হামলা চালিয়েছে এবং তাঁকে গুলি করে আহত করেছে তাদের আমরা দ্রুত প্রেফতারের দাবি করছি এবং কারা এই হামলা চালিয়েছে এবং কাদের প্ররোচনায় এই হামলা করা হয়েছে তা তদন্দের মাধ্যমে প্রকাশ করা হোক। বর্তমান অস্থির রাজনৈতিক সময়ে রিয়াজ রহমান সাহেবকে হামলা করা এবং তাকে গুলি করে আহত করার যে হীন চক্রান্ত করা হয়েছে তা জনগন সবিস্তারে জানতে চায়। বাংলাদেশের অন্যান্য তদন্তের মতো যেনো এই তদন্তের রিপোর্ট হিমাগারে না চলে যায় তা সরকার এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখতে হবে।

সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে হামলা এবং তাকে গুলিবিদ্ধ করার পরপরই আমরা পত্রপত্রিকায় দেখলাম মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় থেকে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে এবং নিরপেক্ষ তদন্তের দ্বারা সঠিক ঘটনা উদ্ঘাটনের জন্যে ফরমায়েস করা হয়েছে। এই বিবৃতিতেও আমাদের কোন আপত্তি নেই। তিনি একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। তিনি মার্কিন রাষ্ট্রের বিশেষ কোন কাজ হয়তো তাঁকে দিয়ে করানো যায় আর তাই ঘটনা ঘটার সাথে সাথেই তাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে এবং সরকারকে পরোক্ষভাবে চাপ প্রয়োগ করেছ।

আমাদের প্রশ্ন গত কয়েক দিন ধরে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় বিএনপি জামাত চক্রের লোকদের আগুন বোমা, ককটেল এবং হামলায় যে শত শত নিরীহ নারী শিশু সহ মানুষকে পুরিয়ে মারা হচ্ছে তার খবর প্রতিদিন ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া সহ প্রিন্ট মিডিয়ায় ছাপা হচ্ছে অথচ মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় বা নিদেন পক্ষে বাংলাদেশের বিবেকবান সুশীল সমাজের কোন প্রতিনিধিকে এই হত্যাকান্ডের কোন প্রতিবাদ প্রকাশ করতে দেখছি না। আমরা মনে করি রিয়াজ সাহেবের উপর হামলা যেমন নিন্দনীয় ঠিক তেমনি ভাবেই প্রতিদিন ক্ষমতায় যাওয়ার অভিলাষে শত শত মানুষের প্রাণ কেড়ে নেওয়াও সমপরিমান নিন্দনীয়। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় রিয়াজ সাহেবের জন্যে যেমন প্রতিবাদ ও নিন্দা প্রস্তাব পাঠিয়েছেন ঠিক তেমনিভাবে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্যে পাগল্ প্রায় নেতা নেত্রীদের বিরুদ্ধেও একই রকম নিন্দা প্রস্তাব পাঠাতে হবে এবং তাদের উস্কানীর লাটাইয়ের সুতা টেনে ধরতে হবে।

অন্যদিকে রিয়াজ সাহেবের আহত হওয়ার ঘটনায় বিএনপি জামাত জোট বৃহস্পতিবার সারাবেলা হরতাল ডেকেছেন। ভালো কথা জনগন সেই হরতালে কতটূকু সাড়া দেন সেতা দেখাই যাবে। তবে আমাদের কথা হলো প্রতিদিনের তথাকথিত অবরোধে যে মানুষ গুলো প্রাণ হারাচ্ছেন তাদের জন্যে কি সাধারনের মানুষের এই হত্যার প্রতিবাদে এইসব হত্যাকারী দলগুলোকে ধিক্কারসহ ত্যাগ করতে পারে না?