ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

সবাইকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা। এই ব্লগে আমার প্রথম পোস্ট। বছরখানেক ধরে ব্লগ পড়ছি আর টুকটাক লিখছি কয়েক মাস ধরে। মূলত এই ব্লগে নিয়মিত আসার জন্য আমাকে বারবার অনুরোধ করছিলো আমার প্রিয় বন্ধু ইমন যার আইডি “আলোর সন্ধানে” এবং প্রিয় ছোট ভাই “সামসুল আরেফিন”। অবশেষে, কিছুটা সময় বের করে চলে আসলাম কিছু লিখতে।

আজ অন্যান্য ব্লগে একটু আগে যে লিখাটা পোস্ট করেছি সেটাই পোস্ট করছি। সবাই পড়বেন আশা করছি।
সকালে বাসা থেকে বের হয়েই অনেক টেনশনে ছিলাম ভার্সিটিতে পরীক্ষা দিতে আসতে পারব তো?
শুধু ক্লাস থাকলে এই দিনে বাসা থেকে বের হতাম না… কিন্তু এইটা ছিল আমার ভার্সিটির লাস্ট ইয়ার এর লাস্ট সেমিস্টারের পরীক্ষা। এই জন্যই একটু বেশি টেনশনে ছিলাম…
তবে, আল্লাহ্‌র কাছে শোকরিয়া এই যে অনেক কষ্টে ভার্সিটির পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পেরেছি।

আমার বাসা নারায়ণগঞ্জ থেকে ভার্সিটির ক্যাম্পাস ধানমণ্ডিতে যেতে আজ তিন ঘণ্টারও বেশি সময় লেগেছে যেখানে এই তীব্র গরমের দুপুরে এক ঘণ্টা পায়ে হেঁটে যেতে হয়েছে…

এ কেমন দেশে বসবাস করছি?? যেখানে স্বয়ং রাষ্ট্রযন্ত্র তার প্রশাসনকে ব্যবহার করে ঢাকামুখী সকল যানবাহন বন্ধ করে দিয়ে সাধারণ মানুষকে এইভাবে কষ্ট দিচ্ছে??

দুপুর ২টার পর আমার পরীক্ষা কিন্তু বাসা থেকে সকাল ১০টার দিকেই বের হয়ে গিয়েছিলাম। রাস্তায় এসে দেখি হরতালের দিন থেকেও ভয়াবহ অবস্থা…কোন ধরণের যানবাহন নাই…
অনেক কষ্ট করে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য ক্যাম্পাসে হাজির হতে পেরেছিলাম।বাসায় ফেরার পথেও আবার সেই দুঃসহ ভোগান্তির শিকার……

অনেক কথাই তো বলতে ইচ্ছে করছে… কিন্তু মুখ খারাপ করব না…
শুধু এই কথাই বলছি যে, এই চুলের সরকার কি জনগণকে ভোঁদাই মনে করে??
সরকার নিজেকে এতো অসহায় মনে করে ক্যান??এখনো তো দেশের প্রায় ৭৭% মানুষ এই সরকারকে মনেপ্রাণে(!)চায়…
তাহলে বিএনপি জামাতের এই সামান্য চুলের সমাবেশকে ঘিরে এতো আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে ক্যান আমাদের এই ডিজিটাল সরকার??
আমাদের নেতা-নেত্রীরা প্রায়শই বলেন “জণগনের স্বার্থে” তারা সবকিছু ত্যাগ করতে রাজি।”
“জণগনের স্বার্থে” এই দুর্লভ জিনিসটা কি সেটা আজও জানতে পারলাম না!! আফছুস।

তাই, বলতেই হচ্ছে-হায় সেলুকাস!! কি বিচিত্র এই দেশ !!!
আগামীতে ভোট দেওয়ার সময় আমার আজকের কষ্টের এই দিনটির কথা মনে পড়বেই…সেটা বিবেচনায় নিয়েই আমাদের সাধারণ জনগণের আগামীতে ভোট দেয়া উচিত।
কালকেও আমার পরীক্ষা আছে। সবাই দুয়া করবেন, সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আল্লাহ্‌ হাফেজ।