ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

অবশেষে রাণীরবন্দর থেকে পাকেরহাট-চৌরাঙ্গির রাস্তাটি প্রশস্ত করার কাজ শুরু হয়েছে। সেই সাথে পাকেরহাট শাপলা চত্বরের কাজও চলছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আগে ভাগে মানুষকে কোনো কথা দেন না। তিনি কাজে বিশ্বাসী। কাজ শুরু হলে মানুষ দেখতে পায় এলাকার আসল চিত্র। মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হাত ধরে নিত্য নতুন কাজের সূচনা হচ্ছে খানসামা-চিরিরবন্দর উপজেলায়।

খানসামা উপজেলাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবী ছিল রাণীরবন্দর থেকে পাকেরহাট-চৌরঙ্গি পর্যন্ত লাখ লাখ মানুষের যাতায়াতের রাস্তাটি প্রশস্ত করার। স্থানীয় নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় এই কাজ এগিয়ে চলছে দ্রুতগতিতে। প্রায় ২০ কিলোমিটার রাস্তাটি প্রশস্ত করা হলে এলাকার মানুষের উপকার হবে। সেই সঙ্গে নিত্যদিনের দুর্ঘটনা থেকেও রক্ষা পাবে হাজার হাজার মানুষ। ব্যবসা-বাণিজ্যেও লাভবান হবেন অনেকেই।

বহুল আলোচিত দীর্ঘ প্রায় ২০ কিলোমিটার রাস্তার যে কাজ চলছে তা আগামী নির্বাচনে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলেও ধারণা অনেকের।

 

স্থানীয়রা  বলেন, এই রাস্তাটির কাজ হলে মন্ত্রী মহোদয়ের ভোট বাড়বে। কারণ মানুষের প্রাণের দাবী ছিল এই রাস্তাটি প্রশস্ত করা। কাজ হচ্ছে দেখে আমরা অনেক খুশি।

স্থানীয় নেতাকর্মীরাও বলছেন, মন্ত্রী মহোদয়ের হাত ধরেই বদলে যেতে শুরু করেছিল দুটি উপজেলা। সামনে আরো অনেক কাজ হবে। মানুষের দাবী পূরণ হচ্ছে। সবার সহযোগিতায় একটি মডেল উপজেলার দিকে আমরা ধাবিত হচ্ছি। মন্ত্রী মহোদয়ের ঐকান্তিক চেষ্টায় এসব উন্নয়ন সম্ভব হচ্ছে।