ক্যাটেগরিঃ আর্ত মানবতা, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ

 
mother

প্রতিদিনের মতো সকালে ঘুম থেকে উঠে ল্যাপটপ খুলে অফিসিয়াল ইমেইল চেক শেষে ফেইসবুকে ঢুকতেই একটি পোস্ট চোখে পড়ে চোখ দুটো ছল ছল করে উঠল, আবেগে গাঁ কাটা দিয়ে উঠল | উঠবেই বা না কেন ? এক মায়ের ক্যানসার দ্বিতীয় স্টেজে আছে | চিকিৎসার জন্যে লাগবে অনেক টাকা সব মিলয়ে প্রায় ২০ লক্ষ টাকার মতো | আর মায়ের এই চিকিৎসার পুরা টাকা জোগাড় করছে মায়ের সুযোগ্য এক ছেলে তাও আবার তার মেধা বিক্রি করে | নিজের আকা ছবি বিক্রি করে মায়ের ক্যানসার চিকিৎসার টাকা জোগাড় করছে সে | এবং তার সাথে যোগ দিয়েছে তার কিছু বন্ধু বান্ধবও | চোখ দুটো ছল ছল করে উঠলেও আবার গর্বে বুক ফুলে ওঠে এই ভেবে যে, ধন্য হে বাংলা মা তোমাদের গর্ভে এমন সন্তানদের ধারণ করেছো বলে | ছেলেটির নাম সাজ্জাদ | চারুকলা থেকে পাশ করে এখন গেম ডিজাইন নিয়ে কাজ করে | খুবই সম্মানজনক পেশা কিন্তু মায়ের ক্যানসার চিকিৎসার জন্যে ২০ লক্ষ টাকা জোগাড় করা মুখের কথা না | অনেক টাকা এতো টাকা কিভাবে জোগাড় করবে সেটা নিয়ে চিন্তা করতে থাকে সাজ্জাদ | যেভাবেই হোক মা কে বাচাতেই হবে | কিন্তু বর্তমান সমাজের যে অবস্থা কার কাছে কিভাবে হাত পাতবে সাজ্জাদ? কার কাছে সাহায্য চাইবে সাজ্জাদ? খালি হাতে সবার কাছে মায়ের চিকিৎসার জন্যে সাহায্য না চেয়ে সুন্দর একটা বিনিময় মাধ্যম ঠিক করে সাজ্জাদ | সাজ্জাদ ঠিক করে তার আকা ছবি বিক্রি করেই মায়ের ক্যানসার চিকিৎসার টাকা জোগাড় করবে | তাই সাজ্জাদ ফেইসবুকে একটি পেইজ খুলেছে আর সেখানেই বিক্রি করছে তার এবং তার বন্ধুদের ছবি | শুধু সাজ্জাদ নয় তার সাথে আসছে তার চারুকলার অনেক বন্ধু | দুঃসাহসী একটা কাজ করছে ওরা | সাজ্জাদ এর মতো সন্তান থাকতে মায়ের আর চিন্তা কিসের | সাজ্জাদ অনলাইলনের মাধ্যমে, ফেইসবুকের মাধ্যমে পেইজ খুলে তার ছবি কিনতে বলছে সবাই কে | যেকোনো একটি ছবি কিনে আপনিও দাঁড়াতে পারেন সাজ্জাদের পাশে | আসুন আমরা সবাই সাজ্জদের পাশে দাড়ায় | করুণার দৃষ্টিতে নয় আসুন সামাজিক দায়িত্ব থেকে আমরা সবাই মিলে আমাদের এক মা কে সুস্থ করে তুলি |

সাজ্জাদের একটি পোস্ট আমার কোনো এক বন্ধুর মাধ্যমে আমার ফেইসবুক ওয়াল এ দেখি সকালে | আমার চোখে পড়তেই আমি তার ফেইসবুক পেইজ এ মেসেজ দিয়ে সাজ্জাদের সাথে যোগাযোগ করি | ১৬ কোটি জনসংখ্যার এই দেশে কোনো বাধাই আসলে পার করা অসম্ভব না | আমাদের শুধু সাইকে জানাতে হবে যে আসুন সবাই মিলে এক মায়ের পাশে দাড়ায় | আজকে যদি আমারা সাজ্জাদের পাশে না দাড়ায় এমন একদিন আসবে যে আমাদের দুর্দিনে আমাদের পাশে কেউ দাঁড়াবে না | সারা দিন মাথার মধ্যে ঘুরতে থাকে, চোখের সামনে ভাসতে থাকে সাজ্জাদের মায়ের ছবি | দিনের শেষে অফিস থেকে বের হয়ে অফিসের নিচে নেমে গাড়িতে বসেই ল্যাপটপ খুলে লিখতে বসলাম | ভাবলাম শুধু আমি নয় আরও অনেকই জানাতে হবে | এখন থেকে আমি আমার সাধ্য মতো সাজ্জদের পাশে আছি | ড্রাইভার গাড়িতে স্টার্ট দিলো গাড়ী চলছে আমার বাসার দিকে আর আমার আঙ্গুলে গুলো চলছে কিবোর্ড এ | বাসায় অপেক্ষা করছে আমার বউ, বাচ্চা, মা, বাবা ভাই বোন সবাই | বাসায় ঢুকেই প্রতিদিনের মতো আজকেও মায়ের রুম এ উকি দিয়ে মায়ের হাসিভরা মুখটা যখন দেখব তখনও সাজ্জাদ তার মায়ের চিকিৎসার টাকা জোগাড় করতে ব্যাস্ত থাকবে | ক্যানসারের হাত থেকে মা কে বাঁচানোর জন্যে যখন সাজ্জাদ প্রাণ পণ চেষ্টা করে যাচ্ছে আমি তখন হঠাৎ গাড়ীর দরজা খোলার শব্দ পেয়ে খেয়াল করলাম কানে ভেসে আসল “স্যার বাসায় চলে আসছি” ল্যাপট এর স্ক্রীন টা নামিয়ে গাড়ী থেকে নেমে বাসায় ঢুকেই দেখলাম আমার মেয়েটা আমার মায়ের কোলে | মনে মনে বললাম সত্যি দুনিয়াটা মা ছাড়া একবারে অন্ধকার থাকত | আল্লাহ তায়ালা সাজ্জাদ এর মা কে দ্রুত সুস্থ করে দিন | আজকে অফিস থেকে এসে যতবার মায়ের মুখটা দেখেছি ততবার সাজ্জাদ এর মায়ের ছবিটা চোখে ভেসে উঠছে |

আসুন না সবাই মিলে সাজ্জাদের মা কে সুস্থ করে তুলি | যাদের সামর্থ্য আছে তারা অবশ্যই সাজ্জাদের পেইজ এ যেয়ে অন্তত একটি ছবি কিনুন |

সাজ্জাদের পেইজ এর লিংকঃ

https://www.facebook.com/artcrowdfunding ( দয়া করে লাইক দিতে ভুলবেন না কারণ লাইক দিলে আপনার মাধ্যমে আরও এমন একজন জানবে যার হয়তো সামর্থ্য আছে কিছু না কিছু করার)

সাজ্জাদ এবংতার বন্ধুদের চিত্রকর্ম গুলোর লিংকঃ

https://www.facebook.com/media/set/?set=a.379786555527524.1073741828.379779672194879&type=3

ব্যাংক ইনফর্মেশন এবং বিকাশ নাম্বার বিস্তারিতঃ

10425170_396610760511770_4699992159660246502_n

যাদের সামর্থ্য নাই ছবি কিনে সাজ্জাদের পাশে থাকার তারা প্রাণ ভরে দোয়া করুন আর দয়া করে পোস্ট তা শেয়ার এবং লাইক করুন কারণ আপনি পোস্ট টা শেয়ার এবং লাইক করলে আপনার মাধ্যমে এমন একজন জানবে যার হয়তো সামর্থ্য আছে কিছু না কিছু করার |